ইউটিউবার হতে চাইলে জানতে হবে ইউটিউব বৈশিষ্ট্য সম্পর্কে

স্বাধীন ও সহজ ক্যারিয়ারের একটা অংশ হিসেবে জায়গা করে নিয়েছে জনপ্রিয় ভিডিও শেয়ারিং সাইট ইউটিউব। কিন্তু একজন ইউটিবার হিসেবে এই ইউটিউবে নিজের অবস্থান ধরে রাখতে হলে মানতে হবে অনেক ইউটিউব বৈশিষ্ট্য। অনেকেই বৈশিষ্ট্য মারার কথা বললে নিজে নিজে হতাশ হয়ে যায়। এবং বৈশিষ্ট্য মানতে আমরা রাজি নয়।

ইউটিউব বৈশিষ্ট্য
ইউটিউব বৈশিষ্ট্য

প্রতিটি প্ল্যাটফর্মের যদি কিছু নির্দিষ্ট বৈশিষ্ট্য না থাকে, তাহলে আপনি কখনও কাজ করে মজা পাবেন না।  আপনার দক্ষতা উন্নয়ন করতে এবং আপনার সফলতা নিশ্চিত করতে ইউটিউব এর এই বৈশিষ্ট্যগুলো আপনার জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ। বৈশিষ্ট্য ধরে দেওয়া মানেই এটা কাজের বাধা নয়। এটা হচ্ছে কাজকে এগিয়ে নেওয়ার কিছু সঠিক গাইড এবং নিয়মকানুন।

আপনি কি ইউটিউব এর বৈশিষ্ট্য সম্পর্কে জানেন?

শুধু ইউটিউবার হিসেবে নয়, এই ইউটিউবের মতো প্রত্যেকটা প্রতিষ্ঠানের কিছু নিজস্ব রুলস এন্ড রেগুলেশন থাকে। প্রতিষ্ঠানের সুযোগ সুবিধা বা সেবা গ্রহণ করতে প্রত্যেক ভোক্তাদের এই রুলস এন্ড রেগুলেশন সমূহ মানতে হয়। ঠিক একইভাবে অন্যান্য প্রতিষ্ঠান থেকে ইউটিউবও এর ব্যতিক্রম নয়।

ইউটিউবে ক্যারিয়ার গড়ার জন্য ইউটিউবে নির্ধারিত বৈশিষ্ট্যগুলো মেনে কাজ করাই হচ্ছে আমাদের দায়িত্ব। আমি যখন নতুন ইউটিউব চ্যানেল শুরু করেছিলাম তখন ইউটিউব এর বৈশিষ্ট্যগুলো খুবই সহজ ছিল। আমি আমার চ্যানেল শুরু করার কয়েক মাস পরেই ইউটিউবের নতুন আপডেট চলে আসে। যেটাতে বলা হয় ইউটিউব চ্যানেল মনিটাইজ করার জন্য ১২ মাসের মধ্যে ১০০০ সাবস্ক্রাইবার। এবং ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচ টাইম সংগ্রহ করতে হবে।

Advertisement

নিউজটি পাওয়ার পর অবশ্যই আমিও রীতিমতো অন্যান্য ইউটিউবার এর মত হতাশ হয়েছিলাম। কিন্তু এই হতাশা আমার মধ্যে বেশিদিন টিকে থাকেনি।  যদিও প্রথমদিকে ভাল কনটেন্ট তৈরি করতাম না। তবে পরবর্তীতে নিয়মিত চেষ্টা করতাম যথাযথ ভাল কনটেন্ট তৈরি করতে।  আমাকে সাহায্য করেছে আমার চ্যানেলটি মনিটাইজ করতে এবং ইউটিউব থেকে অর্থ উপার্জন করতে। 

আপনি কি ইউটিউব থেকে অর্থ উপার্জন করতে চান?

ইউটিউব থেকে আপনি যদি টাকা উপার্জন করতে চান, তাহলে একজন ভালো ইউটিউবার হতে হবে। ইউটিউবের নিয়ম-নীতি সম্পর্কে আপনার ভালো ধারণা থাকতে হবে। ইউটিউব সম্পর্কে না জেনে কাজ শুরু করলে যেকোনো সময় আপনার ইউটিউব ক্যারিয়ার ধসে যেতে পারে। এজন্য ইউটিউবের নীতিমালা মানতে যেকোনো ধরনের বিতর্কিত ভিডিও কোনভাবেই আপলোড করা যাবেনা।

যেমন: কোন ধর্মীয় আঘাত আনতে পারে এমন ভিডিও, রাজনৈতিক ঝামেলা জড়িত কোন ভিডিও। কিংবা ব্যক্তিস্বার্থে আঘাত হানবে এমন কোন ভিডিও অথবা অন্যের অধিকার নষ্ট করে বা আপত্তিকর ও অশ্লীল বিষয়বস্তু সম্পর্কে ভিডিও। যা নিয়মনীতি ভঙ্গ করে ইত্যাদি এমন ধরনের ভিডিও ইউটিউবে কখনও আপলোড করা যাবেনা।

তাই ইউটিউবে আপনার চ্যানেলটি খোলার আগে অবশ্যই ইউটিউব সম্পর্কে আপনার জানা এবং তাদের পলিসি বা নিয়মনীতি মেনে চলা একান্ত কাম্য।

Advertisement

ইউটিউবের নতুন আইন সম্পর্কে জানেন?

Youtube ছোট বাচ্চাদের জন্য ভিডিও তৈরির নতুন আইন তৈরি করেছেন। এই আইনকে সংক্ষেপে COPPA বলা হচ্ছে। ইতিমধ্যে আপনি যদি এই আইন সম্পর্কে জানেন, তাহলে কোন সমস্যা নেই। তবে যদি না জেনে থাকেন, তাহলে ইউটিবের পলিসি মনোযোগ দিয়ে পড়ুন। আপনি যদি নতুন ইউটিউব চ্যানেল শুরু করেন, তাহলে এই সমস্যায় আপনাকে পড়তে হবে না। যদি আপনি এই বৈশিষ্ট্য সম্পর্কে জেনে থাকেন।  ইউটিউব প্রতিনিয়ত তাদের ইউজারদের অভিজ্ঞতা উন্নয়ন করার জন্য বিভিন্ন আপডেট নিয়ে আসে।

 যখন কোন নতুন আপডেট ইউটিউব থেকে ঘোষণা করা হয়। তখন সেই সকল আপডেট নিয়ে আমরা আমাদের বিডিব্লগ ওয়েবসাইটে সহজ করে আলোচনা করার চেষ্টা করি। আপনারা যদি আমাদের বিডি ব্লগের নিয়মিত আপডেট গুলো পড়েন। তাহলে আপনি গুরুত্বপূর্ণ সকল আপডেট সম্পর্কে সহজে জেনে যাবেন।

COPPA ইউটিউবারদের জন্য নতুন আইন:

এটি মূলত যারা পুরাতন ইউটিউবার আছেন, তাদের জন্য জটিল সমস্যা তৈরি করেছে। কেননা হঠাৎ এমন সিদ্ধান্ত হওয়ার কারণে যারা ছোটদের নিয়ে ভিডিও তৈরি করেন, তাদের অ্যাড দেখানোর সমস্যা দেখা যাচ্ছে।

একটা নতুন ইউটিউব চ্যানেল মনিটাইজ করার তিনটি শর্ত:

Advertisement

 আপনি যদি একজন নতুন ইউটিউবার হয়ে থাকেন, তাহলে আপনার চ্যানেল মনিটাইজ করার জন্য আপনাকে তিনটি শর্ত অবশ্যই মানতে হবে।  এবং এই তিনটি শর্ত পূরণ করার ক্ষেত্রে আপনি যদি কোন পলিসি নষ্ট করেন তাহলে আপনার চ্যানেল  চিরতরে নষ্ট করা হবে।  সুতরাং যদি আপনি আপনার চ্যানেলের উপর কোন নেতিবাচক প্রভাব  ফেলতে না চান,  তাহলে নিচের আলোচনা করা বৈশিষ্ট্য সম্পর্কে ভালোভাবে জেনে নিন।

Advertisement

১. ১০০০ সাবস্ক্রাইবার সংগ্রহ করা: 

আপনার চ্যানেলটিতে নতুন হয়ে থাকেন তাহলে আপনাকে আপনার চ্যানেল মনিটাইজ করার জন্য অবশ্যই ১০০০ সাবস্ক্রাইবার সংগ্রহ করতে হবে।  এবং এই সাবস্ক্রাইবার গুলো  কোনভাবে  ফেইক সংগ্রহ করা যাবে না। বর্তমান ইউটিউব অ্যালগরিদম এত বেশি উন্নত হয়েছে আপনি যদি কোনরকম দুই নাম্বারি করে থাকেন আপনাকে খুব সহজেই ধরে ফেলতে পারবে। আপনি যদি 1000 সাবস্ক্রাইবার সংগ্রহ করতে চান, তাহলে আপনাকে উপযুক্ত কৌশল গুলো ব্যবহার করতে হবে। এবং ভাল কনটেন্ট আপলোড করতে হবে।

২. ৪০০০ ঘন্টা ওয়াচ টাইম সংগ্রহ করা:

৪০০০ ঘন্টা ওয়াচ টাইম সংগ্রহ করাটাও নতুন চ্যানেলের জন্য খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়। এবং যারা নতুন তাদের জন্য এটি অনেকটা কঠিন বৈশিষ্ট্য। এই 4000 ঘন্টা ওয়াচ টাইম সংগ্রহ করার জন্য আপনি ভিডিও মার্কেটিংয়ে মনোযোগ দিতে পারেন। ভিডিও মার্কেটিং আপনাকে সাহায্য করবে আপনার ওয়াচটাইম সংগ্রহ করার জন্য। 

৩. ১২ মাসের মধ্যে বৈশিষ্ট্যপূর্ণ করা:

একটি নতুন চ্যানেলের জন্য আমরা উপরে যে 2 টি বৈশিষ্ট্য শেয়ার করেছি।  এই দুইটি শর্ত আপনাকে 12 মাসের মধ্যেই পূর্ণ করতে হবে।  আপনাকে সব সময় শেষের বারো মাস হিসেব করেই ইউটিউবের এই দুইটি শর্ত পূরণ করতে হবে। 

যদি আমাদের লেখার বিষয়ে কোনো রকম ভুল হলে,  সে বিষয়ে আমাদেরকে কমেন্ট করে জানান। এবং আপনার অজানা কোন প্রশ্ন থাকলে, সেটিও আমাদের কমেন্টসে করতে পারেন। আমরা আপনার প্রশ্নটির উত্তর খুব গুরুত্বের সাথে প্রদান করব।

Advertisement
bdbloq site icom

একজন ইলেক্ট্রিক্যাল বিষয়ে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে সবসময় টেকনোলজি কে অগ্রাধিকার দিতে ভালোবাসি। প্রযুক্তির সাথে এগিয়ে যেতে ও নিজেকে সবসময় আপডেট রাখার জন্য নিয়মিত প্রযুক্তিগত জ্ঞান নিজে অর্জনের পাশাপাশি অন্যদের সাথে শেয়ার করাতে ভালো লাগে। সময় পেলে প্রযুক্তি, ব্যবসা, মার্কেটিং বিষয়ে লিখতে চেষ্টা করি। পেশা যাই হোক, তা হতে লাভবান হতে চাইলে ব্যবসা ও মার্কেটিং জ্ঞান আবশ্যক।

বাক্সে আপনার মতামত লিখে জানান