সবচেয়ে বেশি লাভজনক ৫০টি অর্গানিক খাদ্য ব্যবসা আইডিয়া

Advertisement

অবশ্যই আপনি অর্গানিক খাদ্য সম্পর্কে শুনেছেন এবং সম্ভবত এ খাবার গ্রহণ করার মাধ্যমে স্বাদও পেয়েছেন। আজকাল, বেশিরভাগ উন্নত স্টোরগুলিতে অর্গানিক খাদ্য বিক্রি হয়। প্রকৃতপক্ষে, সবচেয়ে বেশি লাভজনক ৫০টি অর্গানিক খাদ্য ব্যবসা আইডিয়া গুলি বিশ্বব্যাপী দ্রুত বৃদ্ধি পাচ্ছে।

অর্গানিক খাবারগুলি আসলে স্বাস্থ্যকর, স্বাদযুক্ত, নৈতিক বা পরিবেশ-বান্ধব কিনা তা অত্যন্ত বিতর্কযোগ্য। তবে একটি বিষয় অবশ্যই নিশ্চিত। বিশ্বের যে কোনও জায়গায় অর্গানিক খাদ্য খুচরা ও পাইকারিতে খুব বেশি দামের বিক্রি করা যায়।

আমাদের আজকের লেখাটি আপনার নিজের অর্গানিক খাদ্য ব্যবসা খোলার দুর্দান্ত সুযোগ হিসাবে অনুপ্রাণিত করবে। বেশ কয়েকটি সেরা অর্গানিক খাদ্য ব্যবসা আইডিয়া আপনাদের সাথে শেয়ার করার জন্য আমরা খুবই উদ্বিগ্ন হয়ে আছি।  আইডিয়া গুলো খুবই অসাধারণ একটি লাভবান অর্গানিক খাদ্য ব্যবসা শুরু করার জন্য। 

আপনি যদি  জানতে চান যে, অর্গানিক ব্যবসার আইডিয়া গুলো আপনার জন্য লাভবান হবে কিনা? এবং সময় সাপেক্ষ কিনা? এবং এখানে আপনার জন্য পর্যাপ্ত পরিমাণ সুবিধা রয়েছে কিনা? তাহলে আজকের লেখা টি আপনি মনোযোগ দিয়ে পড়ুন। এবং এখানে যে সকল তথ্য আমরা শেয়ার করেছি সবগুলো আপনি বুঝতে চেষ্টা করুন।

সবচেয়ে বেশি লাভজনক ৫০টি অর্গানিক খাদ্য ব্যবসা আইডিয়া তথ্য এবং চিত্রসমূহ –

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের গ্র্যান্ড ভিউ রিসার্চের একটি সমীক্ষায় দেখা গেছে। বিশ্বজুড়ে অর্গানিক খাদ্য ও পানীয়ের বাজার বিশ্বজুড়ে ২০২৫ সালের মধ্যে ৩২০.৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার অতিক্রম করবে।  ইউরোপীয় পরিসংখ্যান পোর্টাল স্ট্যাটিস্টা ডটকমের প্রতিবেদনে বলা হয়েছিল। বিশ্বব্যাপী অর্গানিক খাবারের বিক্রি ১৯৯৯ সালে ১৫.২ বিলিয়ন মার্কিন ডলার থেকে আরো ২০১৭ সালে ৯ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে বেড়েছে।

৮৩৫ হেক্টরও বেশি অর্গানিক খামার সহ, বিশ্বব্যাপী অর্গানিক খাবারের একক বৃহত্তম উৎপাদক হিসাবে ভারত রয়েছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে বিশ্বে অর্গানিক খাদ্য বিক্রয় ৫০ শতাংশের বেশি। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে, সমস্ত খাদ্য বিক্রির ৫.৫ শতাংশের বেশি অর্গানিক খাদ্য। একই ধরণের প্রবণতা বিশ্বজুড়ে বিকাশমান বলে মনে হচ্ছে।

সবচেয়ে বেশি লাভজনক অর্গানিক খাদ্য ব্যবসা আইডিয়া
সবচেয়ে বেশি লাভজনক অর্গানিক খাদ্য ব্যবসা আইডিয়া

আপনি যদি এটি পড়ে থাকেন, তবে এর সহজ অর্থ হ’ল অর্গানিক খাদ্যের চাহিদা বাড়ছে তা বুঝতে পারছেন। এবং এই চাহিদা অদূর ভবিষ্যতে যে কোনও সময় হ্রাস বা ম্লান হবে না। আপনি কি কোনও ব্যবসা শুরু করার জন্য পরিকল্পনা করছেন? তাহলে অর্গানিক খাদ্য উৎপাদনের জন্য নিজেকে একজন উদ্যোক্তা হিসেবে নিযুক্ত করুন।

৫০ সেরা অর্গানিক খাদ্য ব্যবসা ধারণা –

এই খুব লাভজনক অর্গানিক খাদ্য ব্যবসাক্ষেত্রে কীভাবে প্রবেশ করতে হবে তা আপনি হয়তো  এখনও জানেন না। সুতরাং, এখানে ৫০ টি সেরা অর্গানিক খাদ্য ব্যবসায়ের ধারণা রয়েছে। যা আপনাকে নিজের ব্যবসা শুরু করতে সহায়তা করবে। এই কিউরেটেড তালিকায় আপনার অবস্থান নির্বিশেষে প্রতিটি উদ্যোক্তার জন্য সেরা অর্গানিক খাবারের ধারণাগুলি রয়েছে।

মনে রাখবেন, জৈবিক খাদ্য হিসাবে গণ্য প্রতিটি দেশের নিজস্ব সংজ্ঞা রয়েছে। আমরা এখানে যে সকল অর্গানিক ফুড ব্যবসার আইডিয়া গুলো শেয়ার করেছি। এখান থেকে আপনি যে ব্যবসা শুরু করতে চাচ্ছেন। তা শুরু করার আগে অবশ্যই আপনি আপনার নিকটস্থ কোন কৃষি অফিস অথবা অভিজ্ঞ কোনো ব্যক্তির সাথে যোগাযোগ করতে পারেন। এবং তার কাছ থেকে সঠিক পরামর্শ জেনে নিতে পারেন। কিভাবে আপনি এই ব্যবসাটি হাতে-কলমে বুঝেশুনে শুরু করতে পারেন।

১. জৈব কৃষিকাজ –

জৈব কৃষি কাজ শুধুমাত্র বাংলাদেশের মধ্যে নয়, পাশাপাশি ভারত এবং সারা বিশ্বের মধ্যে এটি জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।  জৈব কৃষি কাজের ক্ষেত্রে আপনাকে অনেক কিছু  বুঝে শুনে কাজ শুরু করতে হবে। সত্যিই এটি একটি ব্যবসা যদি আপনি এটাকে সঠিকভাবে পরিচালনা করতে পারেন।

 বর্তমান সময়ে মানুষ অনেক সচেতন হতে চলছে। বিশেষ করে করোনা আমাদের কি শিক্ষা দিয়েছে যে অবশ্যই বেঁচে থাকার জন্য পুষ্টিকর খাদ্য ও ফরমালিন মুক্ত খাবার গ্রহণ করতে হবে। যেহেতু মানুষ সচেতন হতে চলছে সুতরাং এই  সচেতেনতার চাহিদা পূরণ করার জন্য পর্যাপ্ত পরিমান অর্গানিক খাদ্য উৎপাদন প্রয়োজন।

আপনার দেশের জৈব খাবারের সংজ্ঞা সম্পর্কে স্থানীয় কৃষি বিভাগ বা ব্যুরো অফিসের সাথে যোগাযোগ করুন। আপনি চাইলে প্রাথমিক মূলধন সংগ্রহ করার জন্য দেশীয় বিভিন্ন সংস্থার কাছ থেকে অস্থায়ী ঋণ সংগ্রহ করতে পারেন এ ব্যবসা শুরু করার জন্য। কিছু দেশ জৈব কৃষিকাজের জন্য উৎসাহ এবং ভর্তুকি সরবরাহ করে। 

২. অর্গানিক রান্নাঘর গার্ডেন –

যদি আপনার কোনও খামার না থাকে, তবে এখনও আপনার জন্য বেশ কয়েকটি সেরা অর্গানিক ব্যবসায়ের ধারণা রয়েছে। এর মধ্যে একটি হলো নিজস্ব অর্গানিক রান্নাঘর তৈরি। আপনি যদি কোন ছোট শহর অথবা বড় শহরের মধ্যে বাস করে থাকেন তাহলে এই খাদ্য ব্যবসাটি  জনপ্রিয়তার সাথে করা যেতে পারে। বর্তমানে মানুষ অর্গানিক খাদ্য ক্রয় করার জন্য বেশি টাকা  খরচ করে থাকেন।  আপনি যদি থাকে সত্তিকারের অর্গানিক খাদ্য সরবরাহ করতে পারেন, তাহলে আপনি বেশি টাকা দিয়ে খাদ্য বিক্রি করতে পারবেন। এবং বেশি মুনাফা অর্জন করতে পারবেন।

৩. অর্গানিক স্ন্যাক বার –

অর্গানিক স্ন্যাক বারগুলি খুব জনপ্রিয়, বিশেষত জগিং এবং সাইকেল চালানোর ট্র্যাকগুলির কাছে। ফিটনেস সচেতন ব্যক্তিরা তাদের প্রতিদিনের জগিং এবং সাইকেল চালানোর কাজ শেষ করে জৈবিক স্ন্যাকস সন্ধান করেন। আপনি খুব অল্প বিনিয়োগের মাধ্যমে খণ্ডকালীন ব্যবসায় হিসাবে একটি অর্গানিক স্ন্যাক বার খুলতে পারেন।

৪. অর্গানিক হোমমেড সার-

কম্পোস্টিংয়ের কথা কখনও শুনেছেন? এটি উদ্ভিদ এবং মাংসের স্ক্র্যাপিংগুলি থেকে সার তৈরির প্রক্রিয়া। এবং আপনার রান্নাঘর থেকে খাবার নষ্ট করা। সবুজ জীবনযাত্রাকে প্রচার করে এমন অনেকগুলি সংস্থা বিনামূল্যে একটি কম্পোস্টার সরবরাহ করে।

আপনি বাড়িতে সহজেই জৈব পদার্থ একত্রিত করে তৈরি করতে পারেন অর্গানিক হোমমেড সার।  যারা বাগানের মালিক তাদের মধ্যে কম্পোস্ট সারের প্রচুর চাহিদা রয়েছে।

৫. অর্গানিক রস স্টল –

অর্গানিক রস স্টলে খুব বেশি কিছু প্রয়োজন হয় না। কেবলমাত্র একটি ভাল মানের জুসারে বিনিয়োগ করুন। এবং আপনার নিকটস্থ সুপারমার্কেট থেকে অর্গানিক ফল কিনুন। এবং এই ব্যবসাটি শুরু করার জন্য একটি ছোট করে ব্যান সংগ্রহ করুন।

মানুষ যে কোন সময় নিজের ক্লান্তি দূর করার জন্য অর্গানিক ফলের রস খেতে পছন্দ করেন। এ ব্যবসা শুরু করার জন্য অবশ্যই আপনাকে এটা নিশ্চিত করতে হবে। আপনি যে সকল ফল সংগ্রহ করেছেন তাতে কোনো ফরমালিন যুক্ত নেই। 

এটি প্রচুর লাভজনক একটি ব্যবসা। এর জন্য আপনাকে  লাখ টাকা বিনিয়োগ করতে হবে না।  তবে যে সকল জোকসগুলো আপনি বিক্রি করবেন তা ক্রেতাদের কাছে প্রেজেন্ট করার সময় একটু স্মার্ট ভাবে প্রেজেন্ট করা প্রয়োজন। একবার যে ক্রেতার মন জয় করা সম্ভব হবে। সে ক্রেতা বারবার আপনার কাছ থেকে জোশ সংগ্রহ করার চেষ্টা করবে।

৬. অর্গানিক সবজি চাষ –

বাড়ির উঠোনে পর্যাপ্ত পরিমাণে যে কেউ অর্গানিক সবজি চাষী হতে পারে। এটিতে সত্যিই খুব বেশি জায়গার প্রয়োজন হয় না। অর্গানিক সবজি সবজি ক্রয় করার জন্য নির্দিষ্ট কিছু বাজার থাকে বিভিন্ন স্থান জুড়ে। অর্গানিক সবজি ক্রয় করার জন্য ক্রেতারা অনেক দূর থেকে ভিড় জমায় উক্ত বাজারগুলোতে।

অর্গানিক সবজি বাজারে চড়া দাম নিয়ে আসে। আপনি সরাসরি আপনার ফার্ম থেকে  বিক্রি করতে পারেন পাইকারি ক্রেতাদের কাছে। বা আপনার বাড়ির বাইরে একটি ছোট স্টল থেকে বিক্রি করতে পারেন। যেখানে বসে আপনি ছোট পরিসরে অর্গানিক সবজির ব্যবসা শুরু করতে পারেন।

৭. অর্গানিক সবজি পাইকার –

আপনি যদি কোন কৃষকের সম্প্রদায়ের নিকটে বসবাস করেন বা এমন লোকদের জানেন। যারা স্বল্প পরিমাণে জৈব শাকসব্জী জন্মায়, তাহলে তাদের সাথে পাইকারি ব্যবসায় প্রবেশ করুন।

আপনি অন্যদের তুলনায় কিছুটা বেশি দাম দিয়ে এই উৎপাদকদের কাছ থেকে জৈব শাকসবজি সংগ্রহ করতে পারেন।  এগুলো ক্রয় করার জন্য উন্নত মানের অনেককে তারা রয়েছে যারা সবসময়ই এগুলোর খোঁজ করে থাকেন।  আপনি তাদেরকে খুঁজে বের করেন। এবং প্রয়োজনে তাদেরকে হোম ডেলিভারি করেন। যেখান থেকে আপনি ডাবল প্রফিট সংগ্রহ করতে পারবেন।

৮. অর্গানিক সবজি বীজ –

এমন কয়েক হাজার লোক রয়েছে। যারা জৈব শাকসব্জী এবং ফল উৎপন্ন করতে চান। তবে বীজ কোথায় পাবেন তা জানেন না।

অর্গানিক উদ্ভিদের বীজ বিক্রি করে আপনি এই লোকদের সাহায্য করতে পারেন। এবং পর্যাপ্ত অর্থোপার্জন করতে পারেন। এই ব্যবসায়ও খুব বেশি বিনিয়োগের প্রয়োজন হয় না।

চমৎকার ফলাফল পেতে আপনি অন্য দেশ থেকে বীজ আমদানি করতে সক্ষম হলে বিদেশি বীজ সংগ্রহ করতে পারেন। তবে বীজ আমদানি করার বৈধতা আছে কিনা তা স্থানীয় কৃষি বিভাগের সাথে যোগাযোগ করুন। অনেক দেশ তাদের স্থানীয় বাস্তুতন্ত্র রক্ষার জন্য বীজ আমদানি নিষিদ্ধ করে।

৯. অর্গানিক ফল উৎপাদনকারী –

এটি এমন একটি ব্যবসা যা ধৈর্য এবং অধ্যবসায়ের প্রয়োজন। যদি আপনি একটি খামার বা বাগান পেয়ে থাকেন, তবে অর্গানিক ফল বাড়ানো সহজ হতে পারে। আজকাল আপনি পুরো জৈবিকভাবে ফলিত ফল ধরে এমন গাছ পেতে পারেন। যা আপনার জমিতে কেবল রোপণ করা যায়। অথবা, আপনি আপনার বাগানেও একটি ছোট বাগান তৈরি করতে পারেন।

বর্তমান সময়ে অর্গানিক ফল উৎপাদনকারীদের খুব বেশি মূল্যায়ন করা হয়। এমনকি সরকারও তাদেরকে বিভিন্ন সুবিধা প্রদান করে থাকেন। আপনি চাইলে এ ব্যবসা শুরু করার জন্য সরকারের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে ঋণ সংগ্রহ করতে পারেন। এটি খুবই লাভজনক ব্যবসা এজন্য এ ব্যবসায় কোন প্রতিষ্ঠানে বিনিয়োগ করতে রাজি থাকেন।

১০. অর্গানিক স্বাস্থ্য পরিপূরক –

অর্গানিক স্বাস্থ্য পরিপূরকগুলি তৈরি করা খুব সহজ। এগুলিতে বিভিন্ন অর্গানিক ঔষধি, মশলা এবং অন্যান্য উপাদানগুলির পুষ্টির মান খুঁজে পাওয়া। এবং একটি মিশ্রণ তৈরি করার সাথে জড়িত।

অর্গানিক পদার্থের গুঁড়ো ব্যবহার আপনাকে স্বাস্থ্যকর পরিপূরকের ক্যাপসুল তৈরি করতে সহায়তা করতে পারে। অথবা আপনি পেস্ট এবং যৌগিক তৈরি করতে পারেন।

১১. জৈবিক দেহ ও স্কিনকেয়ার পণ্য –

প্রত্যেক মহিলা শরীর এবং স্কিনকেয়ারে সেরা চান। বিবেচ্য মহিলারা জৈব শরীর এবং স্কিনকেয়ার পণ্য ব্যবহার করেন। সাধারণত অর্গানিক দেহ এবং স্কিনকেয়ার পণ্যগুলি রাসায়নিক এবং অন্যান্য সংযোজন থেকে মুক্ত থাকে। যা ঘন ঘন ব্যবহারের ফলে ত্বকের ক্ষতি করতে পারে।

আপনার বাড়ির পাশে অথবা আপনার বাড়িতে একটি ছোট রুম ডেকোরেট করে। আপনি জৈবিক দেহ স্কিন কেয়ার পণ্য সংগ্রহ করার পর এই ব্যবসাটি শুরু করতে পারেন।  মনে হতে পারে এটি খুবই সাধারণ এবং সহজ ব্যবসা।  তবে এটি একটি খুবই লাভবান ব্যবসা এটা নিশ্চিত।

১২. অর্গানিক শিশুর খাদ্য –

আপনি যদি পিতা বা মাতা হন, তবে অবশ্যই আপনি আপনার সন্তান কে সেরাটি দিতে চাইবেন। বর্তমান শিশুদের স্বাস্থ্য ঝুঁকি কমানোর জন্য মা-বাবারা বিভিন্ন রকম  পুষ্টিকর জৈবিক খাবার সংগ্রহ করে থাকেন। এই ব্যবসাটি শুরু করে আপনি যদি কোনভাবে একবার পরিচিতি লাভ করতে পারেন। তাহলে এটি সবার মাঝে খুব দ্রুত ছড়িয়ে যাবে এবং এখান থেকে ভাল ব্যবসা আপনি দাঁড় করাতে পারেন।

 তবে এ ব্যবসার জন্য প্রধান শর্ত হচ্ছে আপনি যে জৈবিক শিশু খাবার তৈরি করছেন তা নিশ্চিত করতে হবে। কোনরকম রাসায়নিক ব্যবহার করা যাবে না এবং ক্ষতিকারক কোনো কিছু করা যাবে না।

১৩. অর্গানিক খাদ্য ক্যানিং –

বিশ্বব্যাপী উৎপাদিত সমস্ত খাদ্যের ৩৫ শতাংশেরও বেশি অপচয় হয়। জৈব খাদ্যও এই অপচয়গুলির অংশ গঠন করে। কিছু বিনিয়োগের সাহায্যে আপনি একটি ক্যানিং কারখানা খুলতে পারেন যা জৈব খাদ্য প্রসেস করে। ডাবের অর্গানিক খাদ্য রপ্তানি বাজারে দুর্দান্ত দাম নিয়ে আসে। এমনকি এটি বাংলাদেশের মধ্যে অপচয় হওয়া অনেকগুলো খাদ্যকে অপচয় এর হাত থেকে রক্ষা করবে। 

১৪. অর্গানিক খাদ্য দোকান – 

অর্গানিক খাবার উচ্চ মূল্য এবং হ্যান্ডলিং এবং স্টোরেজগুলির জন্য এটির অতিরিক্ত যত্নের কারণে সর্বত্র পাওয়া যায় না।  এটি অনেক লোককে চাইলে জৈবিক খাবার কিনতে বাধা দেয়।

যদি আপনার অঞ্চলে কোনও অর্গানিক খাবারের দোকান না থাকে তবে আপনি বাড়ি থেকে সরাসরি এটি খুলতে পারেন।  শুরুতে স্বল্প পরিমাণে স্টক করুন।

১৫. অর্গানিক প্রাণিসম্পদ প্রজনন-

অর্গানিক প্রাণিসম্পদ প্রজননের অর্থ আপনি জৈব ফিডে প্রাণী উৎপাদন করছেন। এটি ভিন্ন কিছু থেকে আশ্চর্যজনক কিছু নয়। প্রকৃতি দ্বারা প্রাণিসম্পদ জৈব চারণ দেওয়া হয়। আপনাকে যা করতে হবে তা হ’ল প্রাকৃতিক উদ্ভিদ এবং বনাঞ্চলে উদ্ভিদ গাছগুলিতে আপনার পশুপালকে খাওয়ানো।

১৬. অর্গানিক পোল্ট্রি পণ্য –

অর্গানিক পোল্ট্রিও নতুন কিছু নয়।  আসলে, জৈব পোল্ট্রি বাজারে সার এবং হরমোন আসার আগে আমাদের দাদু এবং ঠাকুরমাদের এমন কিছু ছিল।

অর্গানিক পোল্ট্রি এর অর্থ সহজভাবে জৈব শস্য এবং ফিডগুলিতে পাখিদের খাওয়ানো।  অর্গানিক পোল্ট্রি শুরু করা লাভজনক খাদ্য ব্যবসায়ের ধারণা হতে পারে।

১৭. অর্গানিক ঔষধি ফলের ব্যবসা –

অনেক মানুষ আছেন যারা সরাসরি মেডিসিন গ্রহণ না করে বিভিন্ন ফলের রস গ্রহণ করার মাধ্যমে ওষুধ হিসেবে ব্যবহার করে থাকেন। আপনি যদি এ বিষয়ে অভিজ্ঞ হয়ে থাকেন, তাহলে আপনিও এই ফলের গাছ গাছালি গুলো খুজে বের করতে পারেন। ঔষধি  ফলের গাছ সংগ্রহ করে  ব্যবসা শুরু করতে আপনাকে কোন টাকা বিনিয়োগ করতে হবেনা। যদি আপনার একটু চালাকি থাকে।

 বিশেষ করে আপনার বাড়ি যদি পাহাড়ি এলাকা তে হয়ে থাকে, তাহলে আপনি ঔষুধী গাছ গুলোর সন্ধান খুব সহজেই পেয়ে যাবেন।  আপনাকে শুধুমাত্র ফলগুলো গাছগাছালি গুলো সংগ্রহ করতে হবে এবং তা ব্যবহারের জন্য উপযোগী করে তুলতে হবে। এটা করতে পারলে আপনি  চওড়া দামে এই ওষুধে কাজ গুলো বিক্রি করতে পারবেন।

১৮. অর্গানিক ফিশ ফার্ম –

অ্যাকোরিয়ামের মালিক যে কেউ আপনাকে বলবে যে এখানে দুটি ধরণের মাছের খাবার রয়েছে। জৈব এবং অজৈব। যদি আপনি আপনার বাড়ির উঠোনে একটি ছোট মাছের পুকুর খুলছেন তবে এটি একই বিষয় সত্য। তাদের প্রাকৃতিক জৈব খাবার খাওয়ান এবং অর্গানিক মাছ হিসাবে বিক্রি করুন।

১৯. অনলাইন অর্গানিক খাদ্য দোকান –

পাইকারদের কাছ থেকে অর্গানিক খাদ্য প্যাকেজ কিনুন এবং আপনার নিজস্ব অনলাইন অর্গানিক খাদ্য দোকান চালু করুন। আপনি নিজস্ব অর্গানিক খাদ্য স্টোর ওয়েবসাইট করতে পারেন বা ফেসবুক মার্কেটপ্লেসের মতো প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে যেতে পারেন।

অ্যামাজন.কম এবং অন্যান্য শীর্ষ অনলাইন স্টোরের মাধ্যমে আপনার বিক্রি শুরু করুন।

২০. অর্গানিক মশলা আমদানিকারক –

ভারত, ইন্দোনেশিয়া এবং কয়েকটি পূর্ব এশিয়ার দেশগুলিতে অর্গানিক মশলার খামার রয়েছে। এই মশালাগুলি বাল্কে আমদানি করুন এবং খুচরা বিক্রেতাদের কাছে বিক্রয় করুন। এটি ইউরোপ এবং এশিয়ার একটি দ্রুত গতিশীল ব্যবসা যেখানে অর্গানিক মশলার উচ্চ চাহিদা রয়েছে।

২১. অর্গানিক খাদ্য বুটিক –

এটিও খুব জনপ্রিয় একটি ব্যবসা আইডিয়া। বর্তমানে জৈব খাবারের চাহিদা যেহেতু প্রতিনিয়ত বৃদ্ধি পাচ্ছে। আপনি এই সুযোগটাকে কাজে লাগিয়ে এ বিজনেস শুরু করতে পারেন খুব কম টাকা বিনিয়োগ করার মাধ্যমে। আমার কাছে এটি খুবই অসাধারণ একটি ব্যবসা মনে হচ্ছে।

২২. অর্গানিক খাদ্য রফতানি –

আপনি যদি জৈব খামার এবং বাগানের সাথে একটি দেশে বা অঞ্চলে বাস করেন, তাহলে একটি অর্গানিক খাবার রফতানি ব্যবসা খোলার বিবেচনা করুন।  অর্গানিক খাদ্যের চাহিদা বিশ্বজুড়ে বাড়ার সাথে সাথে এই ক্ষেত্রটিতে প্রচুর অর্থোপার্জন করা যাবে।

২৩. অর্গানিক খাদ্য পুনঃস্থাপন –

বাংলাদেশ অর্গানিক খাদ্যের স্বল্প উৎপাদনকারী। এজন্য অর্গানিক খাদ্য বাংলাদেশের জন্য প্রচুর পরিমাণ প্রয়োজন।

আপনি পাইকারী ক্রয় করে বা নিজ বাড়িতে খাবার তৈরি করে খুচরা বাজারের জন্য ছোট, ভোক্তা আকারের প্যাকগুলি তৈরি করবেন। এবং তা পুনরায় বিক্রি করে ভালো অর্থ উপার্জন করতে পারেন।

২৪. অর্গানিক খাদ্য ব্লগিং-

ব্লগিং আজকাল ট্রেন্ডিং করছে এবং অর্গানিক খাবার বিশ্বজুড়ে সংবাদ তৈরি করছে। আপনার যদি লেখার চমৎকার দক্ষতা থাকে, তবে অর্গানিক খাদ্য সম্পর্কে একটি ব্লগ খুলুন। গুগল অ্যাডসেন্স এবং সংস্থাগুলির স্পনসরশিপগুলি আপনাকে বড় অর্থোপার্জনে সহায়তা করে।

 উদাহরণস্বরূপ আপনি বুঝতে  দেখতে পারেন আমাদের এই বিডিব্লগ ওয়েবসাইট। আমরা সাধারণত বিভিন্ন ব্যবসার আইডিয়া মার্কেটিং সম্পর্কিত বিভিন্ন ব্লগ আপনাদের জন্য প্রকাশ করে।  গুগল বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে অনলাইন থেকে অর্থ উপার্জন করে থাকি।  আপনি কিভাবে একটি অর্গানিক খাদ্য বিষয় নিয়ে ওয়েবসাইট তৈরি করতে পারেন।

২৫. অর্গানিক খাদ্য শেফ-

অর্গানিক খাবারের জন্য বিশেষ পরিচালনা ও রান্নার কৌশল প্রয়োজন। আপনি যদি ইতিমধ্যে শেফ হন তবে জৈবিক খাবারে হাত দেওয়ার চেষ্টা করুন। আপনি শীর্ষ রিসর্টগুলিতে এবং ক্রুজ লাইনারগুলিতে বিশেষ শেফ হিসাবে কাজ করতে পারেন, বা আপনার নিজের অর্গানিক শেফ রেস্তোঁরা শুরু করুন।

২৬. অর্গানিক খাদ্য পরীক্ষক-

বর্তমানে অনেকগুলো কোম্পানি তাদের পণ্যের গুণগত মান যাচাই করার জন্য অভিজ্ঞ ব্যক্তিদের করে থাকেন।  এমনকি এদেরকে চওড়া দামে স্যালারি দিতে হয়।  আপনার যদি এই বিষয়ে ভালো জ্ঞান থাকে,  তাহলে আপনি একজন খাদ্যের পুষ্টিগুণ পরীক্ষা করার জন্য পরীক্ষক হিসেবে যে কোন ফুড কোম্পানিতে নিয়োগ পেতে পারেন।

২৭.অর্গানিক কৃষি বিশেষজ্ঞ –

আপনি যদি কৃষিকাজ সম্পর্কে অনেক কিছু জানেন তবে খাঁটি জৈবিক কৌশল এবং স্টাফ ব্যবহার করে কীভাবে ফসল বাড়ানো যায় তা শেখান। জৈব খাদ্যের চাহিদা বাড়ার সাথে সাথে প্রচুর কৃষক জৈব রোপন শুরু করতে আগ্রহী।  আপনি পরামর্শদাতা হিসাবে কাজ করতে পারেন।

২৮. বেকারি অর্গানিক খাদ্য ব্যবসা আইডিয়া –

এটি দুর্দান্ত ব্যবসায়ের ধারণা হতে পারে। অর্গানিক রুটি এবং কুকিজ তৈরি করতে অর্গানিক গম, ভুট্টা, বার্লি এবং কর্নফ্লার ব্যবহার করুন।

প্রাকৃতিক স্বাদ এবং রং ব্যবহার করুন এবং আপনার রেসিপি থেকে অর্গানিক নয় এমন সমস্ত কিছুই মুছে ফেলুন।  আপনি বাস্তবে অর্গানিক খাদ্য প্রেমীদের বাড়িতে বেকড রুটি এবং কুকিজ সরবরাহ করতে পারেন।

২৯. অর্গানিক চকোলেট এবং ক্যান্ডি –

অ্যামাজন ভিজিট করুন এবং আপনি দেখতে পাবেন যে তারা অর্গানিক চকোলেট এবং ক্যান্ডি বিক্রি করছে।  শীর্ষ সুইস এবং বেলজিয়াম চকোলেটিয়ার এবং মিষ্টান্নকারীদের টার্গেট করুন।  আপনি অর্গানিক ক্যান্ডি এবং চকোলেটে একটি বিস্ময়কর সাড়া পাবেন।  এগুলি বাড়িতে তৈরি করুন এবং কেবল অর্ডার ভিত্তিতে বিক্রয় করুন।

৩০. অর্গানিক খাদ্য ট্রাক –

একটি খাদ্য ট্রাক স্থাপন করা এত ব্যয়বহুল নয়।  একটি ব্যবহৃত ভ্যান বা বাস কিনুন এবং একটি খাদ্য ট্রাক হিসাবে রূপান্তর করুন, আপনার খাদ্য ট্রাক থেকে অর্গানিক খাবার পরিবেশন করুন।  একটি অর্গানিক খাদ্য ট্রাকের মালিকানার সেরা অংশ- আপনি যে কোনও জায়গায় অর্গানিক খাবারের চাহিদা রয়েছে সেখানে চালনা করতে পারেন।

৩১. অর্গানিক আইসক্রিম পার্লার –

অর্গানিক আইসক্রিম পার্লারে?  হ্যাঁ। আইসক্রিম নারকেল দুধ, সয়া দুধ এবং গরু বা মহিষের দুধের পরিবর্তে প্রচুর অন্যান্য প্রাকৃতিক বেস দিয়ে তৈরি করা যেতে পারে।

এবং এটিতে জৈবিকভাবে ফলিত ফলের সাথে স্বাদ যুক্ত করুণ। অর্গানিক আইসক্রিমের জন্য কিছু টাকা বেশি দিতে কার কষ্ট মনে হবে? সত্য বলতে বিশ্বের মধ্যে প্রতিটি মানুষ আইসক্রিম খেতে খুব ভালোবাসেন। এজন্য আইসক্রিম ব্যবসাটি আপনার জন্য খুবই লাভবান হতে পারে।

৩২. অর্গানিক দুগ্ধ এবং দুগ্ধজাতীয় পণ্য –

অর্গানিক মাখন, কুটির পনির, সরল এবং স্বাদযুক্ত দই এমন কয়েকটি পণ্য যা আপনি একটি ছোট ব্যবসা খোলার জন্য বিবেচনা করতে পারেন।  কেবলমাত্র আপনার বিনিয়োগ এবং প্রচেষ্টা অপচয় হবে না তা নিশ্চিত করার জন্য এই পণ্যগুলিকে অর্ডার করুন।

৩৩. অর্গানিক জাম এবং আচার –

অর্গানিক শাকসবজি এবং ফল দিয়ে জ্যাম এবং আচার তৈরি করুন, কৃত্রিম রঙ এবং স্বাদগুলি দূরে রাখুন। ক্রেডিট রঙ এর একসময়  অস্তিত্ব ছিল না যখন দাদী নানী তার সময়ে ব্যবহৃত ভাল পুরানো রেসিপি বানাতেন।

৩৪. অর্গানিক মিষ্টান্নের দোকান –

আপনি বাড়িতে তৈরি করতে পারেন জৈবিক পুডিংস, আইসক্রিম এবং অন্যান্য মিষ্টান্নগুলি সহজেই গ্রাহককে খুঁজে পেতে পারে।  লোকেরা যাতে জানতে পারে যে এই জাতীয় জিনিসগুলি তাদের অঞ্চলে উপলব্ধ।

৩৫. অর্গানিক খাদ্য প্রক্রিয়াকরণ –

শুকনো পেঁয়াজ, শুকনো আলু, শুকনো ফল, আপনি অবশ্যই এই পণ্যগুলি চেষ্টা করে দেখেছেন। এখন এমন একটি দৃশ্য বিবেচনা করুন যেখানে এই ফলগুলি এবং ভেজিগুলি অর্গানিক আকারে পাওয়া যায়।

আপনি যদি একটি ছোট উদ্ভিদে এই জাতীয় অর্গানিক ফল এবং শাকসবজিগুলি প্রক্রিয়াজাত করতে পারেন তবে আপনি কী পরিমাণ লাভ করবেন তা কল্পনা করুন।

৩৬. অর্গানিক মাশরুম ফার্ম –

মাশরুমগুলি বছরব্যাপী প্রিয়।  জাপানি এবং মাশরুমের অন্যান্য জাতগুলি একটি চমৎকার বাজার দাম বাড়তে বেশি সময় নেয় না।

আপনার বাগানের একটি ছোট অংশকে গ্রিনহাউস হিসাবে রূপান্তর করুন এবং উচ্চ-শেষ জৈব মাশরুম চাষ করুন।  এমনকি তারা চোখের পলকেও বিক্রি করবে।

৩৭. অর্গানিক খাবারের স্বাদ এবং রঙিন –

পুরানো দিনগুলিতে, ফলের খোসাগুলি তেল এবং প্রাকৃতিক রঙ আহরণের জন্য চাপ দেওয়া হত। প্রক্রিয়াটি ধীর এবং অবশ্যই, কিছু প্রচেষ্টা প্রয়োজন। তবে, আসল অর্গানিক খাবারের স্বাদ এবং রঙের প্রকৃত ঘাটতি রয়েছে। বাড়ি থেকে এই অর্গানিক খাদ্য ব্যবসায়ের চেষ্টা করুন।

৩৮. অর্গানিক হাত চাপযুক্ত তেল –

হাতে চাপযুক্ত তেল প্রসাধনী এবং খাবারের জন্য দরকারী।  আপনি সহজেই পাইকারি ও একটি ছোট তেল প্রেসে অর্গানিক তেলবীজ কিনতে পারেন। শব্দটি চারদিকে ছড়িয়ে দিন এবং আপনি প্রস্তুত ক্রেতা পাবেন।  আপনি যদি আরও সাহসী হন তবে অ্যামাজন এবং ফেসবুক মার্কেটপ্লেসে অনলাইনে যান।

৩৯. অর্গানিক উদ্যান প্রশিক্ষক –

একবার আপনার অর্গানিক ঔষধি এবং শাকসব্জী জন্মানোর কিছু অভিজ্ঞতা হয়ে গেলে, অন্যদের কাছে একটি পারিশ্রমিকের জন্য আপনার দক্ষতা সরবরাহ করুন।  একটি অর্গানিক উদ্যান প্রশিক্ষক হন।

লোকেরা কীভাবে পরিবেশকে সহায়তা করতে পারে এবং তাদের নিজস্ব বাগানে রাসায়নিকের উপর নির্ভরতা হ্রাস করতে পারে তা শেখান।

৪০. অর্গানিক রেসিপি বই-

অর্গানিক পদ্ধতিতে আপনার নিজের রেসিপিগুলি পরীক্ষা করুন এবং একটি বই লিখুন।  এখানে কেবলমাত্র অসুবিধা হ’ল আপনার রেসিপিটির জন্য অর্গানিক খাদ্য উপাদানগুলি সন্ধান করা যেহেতু সবই অর্গানিক সংস্করণে পাওয়া যায় না।

অজৈব পদার্থ অপসারণ এবং জৈব বৈকল্পিকের সাথে প্রতিস্থাপন করতে আপনার রেসিপিগুলি মানিয়ে নিন।  আপনি যদি ফলাফলটি পছন্দ করেন তবে আপনার রেসিপিগুলি লিখে একটি বই তৈরি করুন।

৪১. অর্গানিক রেসিপি ওয়েবসাইট-

রান্না পছন্দ?  কিছু অর্থ ব্যয় করুন এবং অর্গানিক খাদ্য পণ্য ব্যবহার করে আপনার নিজস্ব রেসিপি চেষ্টা করুন।  আপনার রেসিপিগুলি লিখুন এবং একটি দুর্দান্ত সংগ্রহের মধ্যে সংকলন করুন।

একটি ডোমেন নাম, ওয়েবসাইট হোস্টিং এবং অন্যান্য প্রয়োজনীয় জিনিস কিনুন।  আপনি গুগল অ্যাডসেন্স থেকে অর্থ উপার্জন করার পাশাপাশি অর্গানিক খাদ্য সংস্থাগুলির স্পনসরশিপ পেতে পারেন।

৪২. অর্গানিক মদ্যপান-

আজকাল ক্রাফট বিয়ার বিশ্বজুড়ে একটি ক্রোধের কিছু।  আপনি যদি অর্গানিক বার্লি বা অর্গানিক গম, অর্গানিক হপস এবং অনুরূপ স্টাফ দিয়ে তৈরি অর্গানিক বিয়ার সরবরাহ করতে পারেন তবে কী হবে? তা আপনি ভালো বুঝে গেছেন। অর্গানিক কারুকাজ বিয়ার মানুষকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে আকর্ষণ করে।

৪৩. অর্গানিক মদ –

আপনি কি জানেন যে অর্গানিক মদ আসলেই বিদ্যমান?  এটি সাধারণ বুজ থেকে আলাদা নয়।

কেবলমাত্র অর্গানিক অ্যালকোহল শস্য এবং ফল দিয়ে তৈরি যা অর্গানিক উদ্যান এবং কৃষিতে জন্মে।  এটির স্বাদ আরও ভাল, কিছু পানীয় পান।

৪৪. অর্গানিক খাদ্য বর্জ্য সংগ্রহ-

আপনি কী জানতেন যে স্টার রেট করা হোটেল এবং রিসর্টগুলি আসলে তাদের মেনুতে অর্গানিক খাবার অন্তর্ভুক্ত করে? এবং এখানে পরিত্যক্ত অংশ ফেলে দেয়। আপনি তাদের ফেলে দেওয়া ময়লা পরিস্কার করার কাজ হাতে নিতে পারেন, যেন পরিত্যক্ত অর্গানিক অংশ সংগ্রহ করতে পারেন।

এবং পরিবর্তে, আপনি যেমন জৈব খাদ্য বর্জ্য সংগ্রহ করতে পারেন।  অপসারণের জন্য হোটেল এবং রেস্তোঁরাগুলির কাছ থেকে টাকা চার্জ করুন।  জৈব সার তৈরির জন্য যতটা সম্ভব রিসাইকেল করুন।  আপনি উভয় উপায়ে জয়ী হবেন।

৪৫. অর্গানিক খাদ্য বর্জ্য পুনর্ব্যবহার-

অর্গানিক সার ছাড়াও অর্গানিক খাদ্য পুনর্ব্যবহার করার অসংখ্য উপায় রয়েছে।  উদ্ভিজ্জ এবং ফলের স্ক্র্যাপিংগুলি ফাইবার সমৃদ্ধ এবং অর্গানিক কাপড় এবং অর্গানিক কাগজ তৈরি করা যেতে পারে।

পুনর্ব্যবহারযোগ্য প্ল্যান্ট স্থাপনের পরিবর্তে কেবল এমন একটি ব্যবসায়ের হাতে হস্তান্তর করুন যা এটি ইতিমধ্যে কাজ করে।

৪৬. ​​প্যাকেটযুক্ত জৈব প্রস্তুত – রান্না করা খাবার

ব্যস্ত লোকেরা রেডি-টু-কুক খাবার খেতে পছন্দ করেন।  এবং যদি আপনি ১০০ শতাংশ অর্গানিক পণ্য দিয়ে এই জাতীয় খাবার তৈরি করতে পারেন তবে আপনি অবশ্যই প্রস্তুত গ্রাহকগণ পাবেন।

এই স্বাস্থ্য সচেতন আধিকারিক এবং চিত্র-সচেতন শিক্ষার্থীরা জৈবিক খাওয়ার জন্য অবশ্যই কিছুটা বেশি অর্থ দেবেন।

৪৭. অর্গানিক মুদির দোকান-

একটি অর্গানিক মুদি দোকান মানে খাদ্যশস্য এবং প্যাকেজযুক্ত অর্গানিক খাদ্য সামগ্রী বিক্রি করা।  আপনার ক্লায়েন্টদের সনাক্ত করতে হবে এবং আপনার অর্গানিক মুদি দোকানের প্রচুর প্রচার করতে হবে।  অর্গানিক পণ্যগুলির নিয়মিত রূপগুলির চেয়ে বেশি দাম।  তবুও, আপনি অবশ্যই এটি সমৃদ্ধ করবেন।

৪৮. অর্গানিক ক্যাফে খাদ্য ব্যবসা আইডিয়া –

বাড়িতে কিছু জায়গা আছে? বা একটি ছোট দোকান ভাড়া নিতে পারেন? একটি দুর্দান্ত অর্গানিক খাদ্য ক্যাফেটেরিয়া খুলুন।  জৈবিক স্ন্যাকস, অর্গানিক রস এবং অন্যান্য অর্গানিক পানীয় পরিবেশন করুন। জৈবিক স্ন্যাক্স যুক্তিসঙ্গতভাবে দাম নির্ধারণের চেষ্টা করার লোভকে কেউ প্রতিহত করতে পারে না।

৪৯. রান্নাঘর ট্যুর অপারেটর অর্গানিক খাদ্য ব্যবসা আইডিয়া –

অর্গানিক খাদ্য রেস্তোঁরা, খামার এবং অন্যান্য সুবিধাদির জন্য অন্যান্য দেশের লোকদের নিয়ে যান।  বিদেশে ছুটি কাটাতে বেশিরভাগ পর্যটক বিদেশি ডায়েট চেষ্টা করতে বিরত থাকেন। আপনার দেশে কীভাবে অর্গানিক খাদ্য জন্মে এবং রান্না করা হয় তা তাদের দেখান।

৫০. অর্গানিক খাদ্য পুষ্টিবিদ-

অর্গানিক খাদ্য পুষ্টিবিদ হ’ল উদ্বোধনের দিকে নজর দিতে পারেন এমন সেরা হোম-বেসড ব্যবসায়। আপনার প্রয়োজন সমস্ত পুষ্টি এবং ডায়েট পরিকল্পনার একটি ভাল কোর্স করা। এটি আবার একটি কুলুঙ্গি ব্যবসা যা প্রচুর অর্থ উপার্জন করবে যেহেতু অল্প-পুষ্টিবিদ যারা সর্ব-অর্গানিক খাদ্যে বিশেষজ্ঞ।

অর্গানিক খাদ্য বোঝা –

এই সর্বোত্তম জৈব খাদ্য ব্যবসায়িক আইডিয়াগুলির সাথে কোনও উদ্যোগ নেওয়ার আগে: আপনাদের জন্য একটি পরামর্শ।  আপনার স্থানীয় কৃষি বিভাগে যান এবং আপনার দেশে অর্গানিক খাবারের সঠিক সংজ্ঞা জেনে নিন।

অর্গানিক খাবারের সংজ্ঞা প্রতিটি দেশে আলাদা।  এটি আপনাকে কোন অর্গানিক খাদ্য ব্যবসায়ের ধারণাটি গ্রহণ করা উচিত তার একটি পরিষ্কার চিত্র দেবে।

বাস্তবে, অর্গানিক খাদ্য ব্যবসায়ের ধারণাগুলির জন্য প্রয়োজনীয় কিছু জিনিস স্বল্প মূল্যে উপলভ্য হওয়ায় এটি কম বিনিয়োগ শুরু করতে আপনাকে সহায়তা করতে পারে।

কিছু দেশ অর্গানিক খাদ্য রোপনকারী, কৃষক এবং প্রসেসরগুলির জন্য বেশি টাকা ও সংস্থান এবং অন্যান্য সুবিধা সরবরাহ করছে। এ জাতীয় সুবিধা আপনার স্থানেও উপলব্ধ কিনা তা পরীক্ষা করে দেখুন।

এছাড়াও, অর্গানিক খাদ্য এবং এর সুবিধাগুলি সম্পর্কে প্রচুর পড়ুন, বেস্টসেলার জৈবিক খাদ্য পণ্যগুলি সম্পর্কে শিখুন এবং বাজারের তথ্য সহ সমাপ্ত রাখুন।

সমাপ্তি চিন্তা –

পরিসংখ্যান হিসাবে, আমি এই নিবন্ধে আগে উল্লেখ করেছি সঠিকভাবে প্রমাণ করুন, অর্গানিক খাদ্য শিল্প দ্রুত বাড়ছে।  সরকার এবং জনগণ এখন অর্গানিক খাদ্যের সুবিধা সম্পর্কে সচেতন।

অতএব, এই সেরা ৫০ অর্গানিক খাদ্য ব্যবসায়ের আইডিয়াগুলির মধ্যে একটি নিন এবং এই খুব লাভজনক বাজারের চাহিদা অতুলনীয়।

ধন্যবাদ।

Advertisement

বাক্সে আপনার মতামত লিখে জানান