কিভাবে জীবনে প্রকৃতভাবে সফল হওয়া যায় | Real Motivational Speech

thumbnail
কিভাবে জীবনে প্রকৃতভাবে সফল হওয়া যায় | Real Motivational Speech
কিভাবে জীবনে প্রকৃতভাবে সফল হওয়া যায়

যদি আমি আপনাকে প্রশ্ন করি, জীবনে প্রকৃতভাবে সফল হওয়ার অর্থ কি? তাহলে আপনি কি উত্তর দিবেন? কেউ বলবে জীবনে বেশি টাকা আয় করা, কেউ বলবে সবচেয়ে ধনী মানুষ হওয়া, কেউ বলবে সবসময় সাধারণ জীবনযাপন করা ইত্যাদি।

আনব্যালেন্স সাকসেস বলতে কি বুঝায়?

আমাদের মনে হয় সকল মডেল, গায়ক, সুপারস্টার, মিলিয়নিয়ার এবং বিলিয়নিয়াররাই সফল মানুষ। কেননা তাদেরকে দেখে আমাদের মনে হয় তারাই পৃথিবীতে সবচেয়ে সুখী মানুষ। তাহলে কেন তাদের বিবাহিত জীবন কিছুদিন পরে শেষ হয়ে যায়? কেন তারা বিভিন্ন নেশাদ্রব্য খাবার গ্রহণ করে? কেন তাদের মধ্যে অনেকে আত্মহত্যা করে? কারণ হচ্ছে, সফলতা যদি শুধুমাত্র জীবনের একটা বিষয় নিয়ে গড়ে উঠে যেমন শুধুমাত্র টাকা বা নামের উপর নির্ভর করে, তাহলে তা বেশিদিন স্থায়ী হয়ে থাকেনা। মূলত এটাকে আনব্যালেন্স সাকসেস বলা হয়।

শুধুমাত্র একটি সম্পূর্ণ ব্যালেন্স জীবন হতে পারে সফল জীবন। এটা স্থায়ী এবং আনন্দময় হয়।

জীবনে সফলতার জন্য ৪ টি জিনিস প্রয়োজন যা আজকে আমি আপনাদের জন্য লিখতে যাচ্ছি।

১. বড়ি:

আমাদের বড়ি ছাড়া আমরা কোন ফিজিক্যাল একশন গ্রহণ করতে পারিনা। জীবনে সফল হওয়ার জন্য সুস্থ শরীর অবশ্যই প্রয়োজন। এজন্য সুস্থ শরীর পেতে আমাদের সামান্য কিছু নিয়ম মানতে হবে। যেমন:

অক্সিজেন:

দিন দিন আমাদের পরিবেশ বিভিন্ন কলকারখানা ও ইঞ্জিনের মাধ্যমে দূষিত হচ্ছে। ফলে আমাদের প্রয়োজনের তুলনায় কম অক্সিজেন আমরা গ্রহণ করতে পারছি। তাই আমাদের শরীর ঠিক রাখতে প্রতি সকালে আমাদের কিছু ব্যায়াম করা প্রয়োজন।

পানি:

আমাদের শরীর ৬০ থেকে ৭৫ ভাগ জল দিয়ে তৈরি। এজন্য আমাদের শরীরের জলের চাহিদা পূরণ করতে প্রতিদিন ২.৫ লিটার পানি পান করা প্রয়োজন।

ব্যালেন্স ডায়েট:

ব্যালেন্স ডায়েটের অর্থ হলো খাবারে বেশি লবণ থাকবেন, কোন সোড়া থাকবেনা, আর্টিফিসিয়াল কোন কিছু যুক্ত থাকবেনা। কোন কাপেইন থাকবেনা এবং অনেক বেশি পরিমাণে ভেজিটেবল থাকতে হবে।

২. গতি:

আমাদের জীবনে দুই প্রকারের গতি প্রয়োজন। একটা হচ্ছে ফিজিক্যাল গতি দ্বিতীয় হচ্ছে মানুষিক গতি। গতির সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়টি হচ্ছে ফ্লেক্সিবিলিটি। আপনার মানুষিক ফ্লেক্সিবিলিটির মানে হচ্ছে, নতুন এক্সপেরিমেন্ট, দক্ষতা এবং আইডিয়ার জন্য সবসময় নিজেকে প্রস্তুত রাখা। এটা করার জন্য আপনার নিজেকে চ্যালেঞ্জ করতে হবে এবং “কম্পোর্ট জোন” থেকে বের হয়ে আসতে হবে। কম্পোর্ট জোন থেকে যত বের হয়ে আসবেন আপনার মস্তিষ্কের ফ্লেক্সিবিলিটি তত বৃদ্ধি পাবে।

এবার আমি ফিজিক্যাল গতি নিয়ে:

ফিজিক্যাল গতি বলতে কাজকে বুঝানো হয়ে থাকে। কাজ করার মাধ্যমে নিজের লক্ষ্যের এক স্থান থেকে অন্য স্থানে যাওয়াকে মূলত ফিজিক্যাল গতি বলা হয়। মনে করুণ এখন আপনি ব্যবসা থেকে প্রতিদিন পাঁচ হাজার টাকা প্রফিট করেন, কিন্তু আপনি চান আগামী বছর থেকে প্রতিদিন দশ হাজার টাকা করে প্রফিট করতে। এর জন্য আপনাকে কাজ করে সেই সেই লক্ষ্যে পৌঁছাতে হবে। তাহলে আপনি আপনার ফিজিক্যাল গতিকে কাজে লাগাতে পারবেন।

৩. পরিবেশ:

আমাদের চারপাশে যা গড়তে থাকে, তার প্রভাব সবসময় আমাদের উপর পড়তে থাকে। আমরা যা বারবার দেখি এবং আমরা যাদের সাথে চলাফেরা করি তাদের প্রভাবও আমাদের মাঝে বিস্তার করে। এই প্রভাবের দু’টি দিক রয়েছে। এটা যেমন আমাদের উপর প্রভাব ফেলে, ঠিক আমরাও আমাদের প্রভাব অন্যদের উপর ফেলতে পারি।

আমরা নিয়মিত যাদের সাথে চলাফেরা করি তাদের সাথে আমাদের কোনো না কোনোভাবে মিল রয়েছে। তা হতে পারে আর্থিক দিক থেকে, হয়তো চরিত্রের দিক থেকে, বা হয়তো মনের দিক থেকে। আমরা মানুষরাও গাছের মতো একে অপরের মাঝে এনার্জি প্রদান করে থাকি। সেটা পজিটিভ এনার্জি বা নেগেটিভ এনার্জি।

কারো সাথে চলাফেরা করার মাধ্যমে আপনি তার পজিটিভ এবং নেগেটিভ দু’টি এনার্জি গ্রহণ করতে থাকেন, ঠিক একইভাবে আপনার এনার্জিও অন্যরা গ্রহণ করে। এবং আমাদের বাড়িতে যা আমরা সবসময় ব্যবহার করি ও চোখের সামনে দেখি তাও আমাদের উপর প্রভাব ফেলে। এজন্য আমাদের উচিত আমাদের বাড়ির দেয়ালে বা আশেপাশে পজিটিভ বা ভালো জিনিস গুলো রাখা।

৪. নিজেকে নির্বাচন করুণ:

বর্তমানে আপনি কি? এবং ভবিষ্যতে আপনি কি হতে চান? আপনার চরিত্র এখন কেমন? ভবিষ্যতে কি কি পরিবর্তন করা প্রয়োজন? আপনি আগামীতে কত টাকা আয় করতে চান? আপনার পছন্দ গুলো কেমন? এবং কেমন হলে ভালো হতো? বর্তমানে আপনি যে প্রজেক্টটি নিয়ে কাজ করছেন তার ফলাফল ভবিষ্যতে কেমন হবে? এসব বিষয় সম্পর্কে জানতে হবে। অর্থাৎ নিজের প্রতি একটি সম্পূর্ণ ধারণা অর্জন করাকে নিজেকে নির্বচান করা বুঝায়। এটা জীবনে সুখী থাকার জন্য খুবই প্রয়োজন। আপনি যদি নিজেকে চিনতে না পারেন, তাহলে অন্যদের কিভাবে চিনবেন?

কে নিজেকে যাচাই করা প্রয়োজন?

নিজেকে নির্বাচন করার মাধ্যমে আপনি নিজের ভুল ও সঠিক গুলো জানতে পারবেন। এটা আপনার ভুল গুলো থেকে বের হয়ে আসতে সাহায্য করবে এবং সঠিক কাজের জন্য আপনার আত্মবিশ্বাস আরও বৃষ্টি করবে।

Life is not finding yourself. Life is about creating yourself.

আপনি যদি আপনার জীবন পরিপূর্ণ সফল ব্যক্তির জীবনে পরিবর্তন করার সকল তথ্য এবং সহজ গাইডলাইন গুলো জানতে চান, তাহলে নিচে দেওয়া লিংক থেকে “Power Start” বইটি অর্ডার করতে পারেন।

Md Thouhidul Islam TAWHIDMd Thouhidul Islam TAWHID
প্রযুক্তিকে ভালোবাসি, তাই প্রযুক্তি নিয়ে লিখি। লেখার মাধ্যমে নিজে শিখি ও অন্যদের শেখানোর চেষ্টা করি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back To Top
error

Enjoy this blog? Please spread the word :)