ওয়েবসাইট ও ব্লগে ফ্রি ট্রাফিক বা ভিজিটর

ওয়েবসাইট ও ব্লগে ফ্রি ট্রাফিক বা ভিজিটর পাওয়ার কৌশল

Advertisement

আমি মনে করি আপনার একটা ওয়েবসাইট অথবা ব্লগ রয়েছে। যেটাতে আপনার ট্রাফিক নিয়ে আসা প্রয়োজন। এজন্য আপনি  লিখাটি পড়ার জন্য এটিতে ক্লিক করেছেন। ওয়েবসাইট ব্লগে ফ্রি ভিজিটর বা ট্রাফিক নিয়ে আসার জন্যে এমন কিছু কৌশল আমরা আজকের আর্টিকেলে শেয়ার করব আপনাদের সাথে। 

আপনার যখন কিছু করার থাকে না। যখন সম্পূর্ণ বেকার হয়ে বসে আছেন। কোন কাজ পাচ্ছেন না। এমনকি পকেট খরচের টাকাও কোনভাবে সংগ্রহ করতে পারছেন না। এমন সময় সবার জন্য সহজ পদ্ধতি ব্লগিং এর মাধ্যমে উপার্জন করা। ব্লগিং এর বিষয় মানে ব্লগে ফ্রি ভিজিটর বা ট্রাফিক কৌশল খুবই গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা। 

বর্তমানে সবকিছুই অনলাইন ভিত্তিক হয়ে যাচ্ছে।

কারো কোন বিষয় নিয়ে জানার ইচ্ছে হলে ৮০ ভাগ মানুষ প্রথমে তা গুগলে গিয়ে সার্চ করে।  বেসিক তথ্য গুলো জেনে নিতে অনলাইন হচ্ছে একমাত্র বিশ্বস্ত প্ল্যাটফর্ম। অনলাইনে যেহেতু একাধিক এক্সপার্টরা বিভিন্ন বিষয়ে শিক্ষা দিয়ে থাকেন এই জন্য একাধিক শিক্ষকের কাছ থেকে শেখার সুযোগ হয় অনলাইনের মাধ্যমে। আর যারা বিভিন্ন বিষয় নিয়ে জানতে চাই, তাদের জন্য আপনি তৈরি করতে পারেন একটি ওয়েবসাইট বা ব্লগ

যাই হোক,  আমি মনে করছি আপনার ইতিমধ্যে একটা ওয়েবসাইট রয়েছে অথবা আপনি একটা ওয়েবসাইট তৈরি করবেন।  কিন্তু এটা জানার বিষয় কিভাবে আপনার ওয়েবসাইটে আপনি ফ্রি ট্রাফিক বা ওয়েবসাইটে ভিজিটর নিয়ে আসবেন।  বর্তমানে প্রতিনিয়ত নতুন নতুন ওয়েবসাইট তৈরি হচ্ছে তার মানে ব্লগারদের চাহিদা নিয়মিত বেড়ে যাচ্ছে এবং প্রতিযোগিতাও বেড়ে যাচ্ছে। আর এই প্রতিযোগিতায় টিকে থাকার জন্য আমাদের শিখতে হবে কিভাবে ওয়েবসাইটে ভিজিটর নিয়ে আসা যায়। 

ওয়েবসাইট ও ব্লগে ফ্রি ট্রাফিক বা ভিজিটর (1)
BDBLOQ seo image

ওয়েবসাইট ও ব্লগ তৈরি সবাই করছেন। ব্লগে নিয়মিত আর্টিকেল প্রকাশ করে যাচ্ছেন। কিন্তু আপনার আর্টিকেল গুলো পড়ার জন্য কোন ভিজিটর বা ট্রাফিক খোঁজে পাচ্ছেন না। যদি এমনটা হয়ে থাকে তাহলে আজকের লেখাটা আপনাকে খুব মনোযোগ দিয়ে পড়ার আমি উপদেশ দিব।  সাধারণত আমরা বিডি ব্লগ ব্লগে এই ধরনে  কার্যকরী কৌশল গুলো বিভিন্ন সময় শেয়ার করে যাচ্ছি।  আপনি আমাদের এই লিখাটি পড়ার পাশাপাশি অন্যান্য লেখা গুলো পড়তে পারেন যেখানে আপনি কার্যকর অনেকগুলো রিপোর্ট পেয়ে যাবেন আপনার অনলাইন বিজনেস বৃদ্ধি করার জন্য।

সত্যি কি আপনি ওয়েবসাইট ও ব্লগে ফ্রি ভিজিটর বা ট্রাফিক পাচ্ছেন না?

যদি এই মহা সমস্যাটি সত্যি হয়, তাহলে আপনি আমার আজকের লেখাটি সম্পূর্ণ পড়ুন। আশাকরি, অবশ্যই আপনি ব্লগিং করে সফল হতে পারবেন। ব্লগিং এ ব্যর্থ হওয়ার ৯০% কারণ হচ্ছে ট্রাফিক। ট্রাফিক না থাকলে আপনি কখনও এই কাজে কোন আউটপুট পাবেন না।

আমিও যখন প্রথম ব্লগিং শুরু করি, তখন ঠিক এই ট্রাফিক সমস্যা নিয়ে চিন্তা করতাম। এই বিষয় গুলো নিয়ে সঠিকভাবে কাজ করতে আমার প্রায় ২ বছরের বেশি সময় লেগেছে।

ওয়েবসাইট ও ব্লগে ফ্রি ভিজিটর বা ট্রাফিক কিভাবে পাবেন সেটা জানার জন্য আজকের লেখাটি যথেষ্ট –

এখানে আমরা যতগুলো আইডি আপনাদের সাথে শেয়ার করব সবগুলো সঠিকভাবে অনুসরণ করলেই কিন্তু এখান থেকে আপনি ফলাফল পাবেন।  এসইও বিষয়টি খুবই সহজ যদি আপনি বিষয়গুলো সহজভাবে অনুধাবন করতে পারেন। 

১. সার্চ ইঞ্জিনে আপনার ওয়েবসাইট ও ব্লগ সাবমিট করুণ –

ওয়েবসাইট ও ব্লগের ৭০% এর বেশি ট্রাফিক আসে গুগল থেকে। এজন্য গুগলকে কখনও অবহেলা করা যাবেনা। আপনি অনলাইনে কিছু করার চিন্তা করলে আগে গুগলকে আপনার হাতে কিভাবে নিয়ে আসতে পারেন সেটা চিন্তা করতে হবে। অর্থাৎ গুগল এর সকল নিয়ম মানলে আপনি গুগলকে আপনার করে নিতে পারবেন। এছাড়াও Google এর পরে রয়েছে Yahoo & Bing ইত্যাদি সার্চ ইঞ্জিন। আপনার ওয়েবসাইট ব্লগ সাইটে ফ্রী  ট্রাফিক বা ভিজিটর  বৃদ্ধি করতে হলে অবশ্যই এই তিনটি সার্চ ইঞ্জিনে আপনার ওয়েবসাইট বা ব্লগকে সাবমিট করতে হবে।

Advertisement

গুগলে আপনার ওয়েবসাইট ও ব্লগ কে সাবমিট করার জন্য আপনাকে যেতে হবে Google Search Consol এ। এভাবে প্রতিটি সার্চ ইঞ্জিন ভিজিট করে আপনাকে ওয়েবসাইট ও ব্লগ সাবমিট করবেন।

ওয়েবসাইট ও ব্লগে ফ্রি ট্রাফিক নিয়ে আসুন ফ্রি ট্রাফিক নিয়ে আসতে আমার পদ্ধতি।

ট্রাফিক

২. সোস্যাল মিডিয়া এর মাধ্যমে ভিজিটর নিয়ে আসুন –

আপনার ওয়েবসাইট ও ব্লগে দ্রুত ট্রাফিক পাওয়ার জন্য সোস্যাল মিডিয়া সাইটগুলো খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এমন কি আপনার ওয়েবসাইট ও ব্লগকে প্রথমিকভাবে সবার সাথে পরিচিত করাতে সোস্যাল মিডিয়ার কোন বিকল্প নেই। সোস্যাল মিডিয়াগুলোর মধ্যে জনপ্রিয় হচ্ছে ফেসবুক, টুইটার, ইউটিউব, ইনস্টাগ্রাম ইত্যাদি।

এখান থেকে ফ্রি ট্রাফিক পাওয়ার জন্য নিয়মিত আপনার ওয়েবসাইট ও ব্লগের লিঙ্ক গুলো শেয়ার করতে হবে। এভাবে ধারাবাহিক পোষ্ট করতে থাকলে আপনার ওয়েবসাইট ও ব্লগ দ্রুত উন্নত হতে শুরু করবে এবং ট্রাফিক আসতে থাকবে।

৩. অতিথি পোষ্ট করার মাধ্যমে ট্রাফিক নিয়ে আসুন –

ওয়েবসাইট ও ব্লগে ট্রাফিক নিয়ে আসার জন্য অতিথি পোষ্ট একটি অসাধারণ ও খুবই কার্যকর মাধ্যম। আপনার ওয়েবসাইটে অর্গানিক ট্রাফিক নিয়ে আসতে এটি আপনি করতে পারেন।

অতিথি পোষ্ট করার জন্য আপনাকে আপনার ওয়েবসাইট ও ব্লগের নিশ এর সাথে মিলে এমন ওয়েবসাইট ও ব্লগ গুলো তার্গেট করতে হবে। এবং তাদের সাথে যোগাযোগ করে অতিথি পোষ্ট করার অনুমতি ও এক্সেস নিতে হবে। আপনি যদি চান বিডিব্লগে একজন অতিথি লেখক হিসেবে আপনার লেখা প্রকাশ করতে পারবেন। 

৪. কমেন্ট এর মাধ্যমে ওয়েবসাইট ও ব্লগে ফ্রি ভিজিটর বা ট্রাফিক নিয়ে আসুন –

Advertisement

কমেন্টের মাধ্যমে ট্রাফিক নিয়ে আসার জন্য আপনাকে আপনার নিশ রিলেটেড ব্লগ গুলোর কমেন্ট বক্সে গিয়ে কমেন্ট করতে হবে। এভাবে ভালো ভালো কিছু ওয়েবসাইট ও ব্লগ এর মধ্যে কমেন্ট করুন। এর ফলে আপনি অনেকগুলো অর্গানিক ট্রাফিক পেয়ে যাবেন।

তবে কমেন্ট করার ক্ষেত্রে সাবধান থাকতে হবে আপনার কমেন্ট যেন স্পামিং না হয়।  অধিকাংশ ওয়েবসাইটের মালিকরা  স্পামিং কমেন্টগুলো কে  গ্রহণ করে না।

Advertisement

৫. Quora এর মাধ্যমে আপনি ব্লগে ফ্রি ভিজিটর বা ট্রাফিক নিয়ে আসতে পারেন-

এখানে আপনাকে একটা প্রোফাইল তৈরি করতে হবে। Quora-তে বিভিন্ন ট্রাফিক নানা বিষয়ে প্রশ্ন করবে। এখানে আপনি তাদের প্রশ্নের উত্তর দিতে পারেন এবং রেফারেন্স হিসেবে আপনার ওয়েবসাইট ও ব্লগ লিঙ্ক দিয়ে দিবেন।

আমি নিজেও Quora-তে মার্কেটিং করে খুব ভালো ফলাফল পেয়েছি। এবং নিয়মিত আমি Quora-তে বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকে এবং নিজেও বিভিন্ন প্রয়োজনীয় প্রশ্ন গুলো করে মার্কেটিং করার চেষ্টা করি নিয়মিত।

৬. ই-মেইল মার্কেটিং এর মাধ্যমে ট্রাফিক নিয়ে আসতে পারেন-

এক্ষেত্রে আপনাকে নিয়মিত ব্যবহার করা হয় এমন ই-মেইল ঠিকানা গুলো সংগ্রহ করতে হবে। আপনার ওয়েবসাইটে যখন কোন বিষয়ে আর্টিকেল প্রকাশ করা হবে, তখন তা ই-মেইলের মাধ্যমে সাবাইকে জানিয়ে দিবেন।

ইমেইল মার্কেটিং করার জন্য কিছু জনপ্রিয় অনলাইন টুলস রয়েছে যেগুলোর মাধ্যমে আপনি খুব সহজেই ইমেইল মার্কেটিং করতে পারেন। কয়েকটি জনপ্রিয় ইমেইল মার্কেটিং টুলের লিংক আম্বানির সাথে যুক্ত করেছি। নিচে যুক্ত করা লিংকগুলো আমাদের এফিলিয়েট লিংক। এই লিংক গুলো ব্যাবহার করে আপনারা কোন প্রোডাক্ট ক্রয় করলে। আমরা এখান থেকে নির্দিষ্ট পরিমাণ একটি কমিশন গ্রহণ করব।

GetResponse

Aweber

৭.  শক্তিশালী দ্রুতগতির হোস্টিং সার্ভার ব্যবহার করুন –

এটি খুবই খুবই গুরুত্বপূর্ণ বিষয় যা আপনার ওয়েবসাইটের প্রাণ। আমি একটা উদাহরণ দিয়ে বললে আপনারা আরও ভালো বুঝতে পারবেন। মনে করুণ আপনি একটা পাকা বাড়ি বানাতে যাচ্ছেন, তাতে আপনি কোন কোম্পানির সিমেন্ট ব্যবহার করতে চাইবেন? ভালো কোম্পানি নাকি খারাপ কোম্পানির সিমেন্ট? 

অবশ্যই আপনি ভালো কোম্পানির সিমেন্ট ব্যবহার করতে চাইবেন। ঠিক একইভাবে একটি ওয়েবসাইট তৈরির সময় আপনাকে ভালো কোন কোম্পানির হোস্টিং সার্ভার ব্যবহার করতে হবে। এটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ আপনার ওয়েবসাইট বা ব্লগের জন্য।

কোন কোম্পানির হোস্টিং ভালো হবে?

আমি জানি আপনারা এমন একটি প্রশ্ন অবশ্যই করবেন। এজন্য এর উত্তর দিতে হচ্ছে। এই প্রশ্নের উত্তরে কোন কোম্পানিকে খারাপ বলে টার্গেট করাটা সম্পূর্ণ অন্যায়। প্রতিটি কোম্পানির হোস্টিং সার্ভিস ভালো। তবে কথায় আছে জিনিস যেটা ভালো দাম তার একটু বেশি। আমি ব্যক্তিগতভাবে Namecheap” এবং “BlueHost” “HostGator” ডোমেইন ও হোস্টিং সার্ভিস ভালো লাগে। বিশেষ করে Namecheap এর সাপোর্ট অসাধারণ লাগে।

Advertisement

এখানে আমি ট্রাফিক নিয়ে আসার বিভিন্ন মাধ্যম নিয়ে আলোচনা করছি। তবে আপনাদের কমেন্ট পেলে বিস্তারিত আলোচনা করার চেষ্টা করবো – ইনশাআল্লাহ।

ধন্যবাদ।

Advertisement

Md thouhidul islam tawhid - seo and digital marketing

একজন ইলেক্ট্রিক্যাল বিষয়ে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে সবসময় টেকনোলজি কে অগ্রাধিকার দিতে ভালোবাসি। প্রযুক্তির সাথে এগিয়ে যেতে ও নিজেকে সবসময় আপডেট রাখার জন্য নিয়মিত প্রযুক্তিগত জ্ঞান নিজে অর্জনের পাশাপাশি অন্যদের সাথে শেয়ার করাতে ভালো লাগে। সময় পেলে প্রযুক্তি, ব্যবসা, মার্কেটিং বিষয়ে লিখতে চেষ্টা করি। পেশা যাই হোক, তা হতে লাভবান হতে চাইলে ব্যবসা ও মার্কেটিং জ্ঞান আবশ্যক।

নিচের বাক্সে আপনার মতামত লিখে জানান।