ঘরে বসে টাকা আয় করতে চাই

ঘরে বসে টাকা আয় করতে চাই | ৫টি উপায় জেনে নিন

Advertisement

ঘরে বসে টাকা আয় করতে চাই এটাকি সম্ভব! একসময় আমাকে কেউ যখন বলতো ঘরে বসে আজকে ১০ ডলার আয় করেছি। তখন আমি হাসতাম। ভাবতাম ঘরে বসে কিভাবে আয় করা সম্ভব? ঘরে কি টাকা বানানো যায়? কিন্তু সেই সময়ের ভুল ধারণা এখন সত্যতে পরিণত হয়েছে। কারণ এখন আমি অন্যজনকে আয় করতে দেখিনা, আমি নিজেই ঘরে বসে আয় করছি। এজন্য আমার আজকের লেখা Earn from Home।

ঘরে বসে টাকা আয় করতে চাই এটাকি সম্ভব?

আপনি কি কাজ করেন তা আমি জানিনা। তবে আমার আজকের ৫টি উপায় ( Earn at Home in 5 Ways) জানার পর আপনি অবশ্যই যেকোন একটার মাধ্যমে। আজকে থেকে কাজ শুরু করতে পারবেন। আপনি একজন শিক্ষক হোন, একজন ছাত্র হোন বা গৃহিণী হোন বা একজন চাকরিজীবি হোন। যা হোন না কেন। আপনি আজকের যেকোনো একটি বিষয় নিয়ে কাজ শুরু করেন। অবশ্যই আপনি ঘরে বসে আয় করতে পারবেন।

আপনি যখন অর্থোপার্জন করতে চাইবেন, তখর অবশ্যই আপনাকে প্রচুর কষ্ট করতে হবে। এবং কষ্টের পাশাপাশি আপনাকে ধর্য্য নিয়ে কাজ করতে হবে। দ্রুত কিছু করতে গেলে তা বিপদের কারণ হতে পারে। ঠিক অনলাইন থেকে ঘরে বসে আয় করতেও আপনাকে কষ্ট করতে হবে।

ঘরে বসে টাকা আয় করতে চাই - Earn at Home in 5 Ways
ঘরে বসে টাকা আয় করতে চাই – Earn at Home in 5 Ways

আসলে অনলাইনে কাজ করার বিষয়টি খুবই সহজ যদি আপনি তা আয়ত্ত করতে পারেন। আর এটা আয়ত্ত করাও কঠিন কাজ নয়। শুধু ধর্য্য নিয়ে কাজ করতে হবে। ঘরে বসে টাকা আয় করার অনেকগুলো উপায় রয়েছে। নতুন নতুন অনেকগুলো পদ্ধতিও বর্তমানে চালু হচ্ছে। আমি জটিল উপায় নিয়ে আলোচনা করবো না।

একদম সহজ কিছু আইডিয়া নিয়ে আপনাদের সাথে শেয়ার করবো। যা করে আপনারা ঘরে বসে আয় করতে পারেন। যারা চাই একমাত্র তারাই সফল হয়। এজন্য আপনাকেও আয় করতে চাইতে হবে।

১। লেখালেখি করে আয় করতে পারেন:

যারা ঘরে বসে অনলাইন থেকে আয় করতে চাই, তাদের জন্য সেরা একটা পদ্ধতি হচ্ছে ব্লগিং বা লেখালেখির কাজ। আপনার যদি লেখালেখি করার অভ্যাস থাকে, তাহলে আপনি বিভিন্ন ওয়েবসাইটের জন্য কন্টেন্ট লিখে দিয়ে ইনকাম করতে পারেন। ইংরেজিতে লিখতে পারলে আপনি ঘরে বসে ঘন্টায় কমপক্ষে ৫ থেকে ১০ ডালার ইনকাম করতে পারবেন। এবং আপনি যদি চান বাংয় লিখে ইনকাম করবেন, তাহলে আপনি বাংলাদেশের অনেকগুলো ওয়েবসাইটে বাংলা ব্লগ লিখে দিয়ে ইনকাম করতে পারবেন।

এই যে আমাদের বিডিব্লগ হচ্ছে একটা ব্লগ সাইট। আমরাও কিছুদিন আগে কয়েকজন লেখকের খোঁজ করেছিলাম। অনেকগুলো লেখা আমরা আবার ক্রয় করেছি খুচরো লেখকদের কাছ থেকে। আপাতত আমরা লেখকের খোঁজ করা বাদ দিয়েছি। কারণ আমরা নিজেরাই এখন নিয়মিত ব্লগ লেখার দিকে মনোযোগ দিচ্ছি।

ঠিক এরকম একটা ব্লগ সাইট তৈরি করে আপনিও আমাদের মতো ঘরে বসে আয় করতে পারেন। এটা সত্যি অসাধারণ লাভজনক ব্যবসা।

প্রথম দিকে একটা ব্লগ সাইট তৈরি করতে আপনাকে ২ থেকে ১০ হাজার টাকা খরচ করতে হবে। তবে স্বল্প খরচে করার জন্য ব্লগার হচ্ছে সেরা প্লাটফর্ম। আপনি অভিজ্ঞ কাউকে দিয়ে মাত্র ২ হাজার টাকা খরচ করে একটা ব্লগ তৈরি করিয়ে নিতে পারেন।

Advertisement

ঘরে বসে টাকা আয় করতে চাই কিন্তু ওয়েবসাইট করতে পারবো না –

আপনাদের জন্যও আয় করার সুযোগ রয়েছে। যারা ঘরে বসে টাকা আয় করতে চাই কিন্তু টাকা খরচ করতে চান না৷ আপনারা নিচের দেওয়া ওয়েবসাইটগুলোর মালিকদের সাথে যোগাযোগ করে একজন প্রিমিয়াম লেখক হিসেবে কাজ করতে পারেন। এই সাইটগুলোতে আপনার লেখা প্রকাশ করে প্রতি ১ হাজার শব্দের জন্য ১ শত টাকা থেকে ৩ শত টাকার মতো পেমেন্ট পেতে পারেন।

কয়েকটি বাংলা ব্লগ লিখে দিয়ে আয় করার ওয়েবসাইট হচ্ছে –

  • মাস্টার ব্লগ
  • হৈচৈ বাংলা
  • প্রিয় ডট কম
  • ফুটপ্রিন্ট প্রেস
  • ইয়ুথ কার্নিভাল
  • বিডি মোটিভেটর
  • লেখক ক্লাব
  • সবজান্তা
  • কয়েকটি ইংরেজি ব্লগ লিখে দিয়ে আয় করার ওয়েবসাইট হচ্ছে –
  • হিউমার
  • ক্র্যাকড
  • লিস্টভার্স
  • উইম্যান ইন রাইটিং
  • ওয়াচ কালচার
  • রাইটারস উইকলি।

যারা বুদ্ধিমান রয়েছে তারা কিন্তু অন্যদের ব্লগে লেখা প্রকাশ না করে নিজের ব্লগে কাজ করতে ভালবাসেন। নিজের ওয়েবসাইট নিয়ে কাজ করলে আপনি প্রথম থেকে আয় করার চিন্তা করতে পারবেন না। এক্ষেত্রে আপনাকে ১ থেকে ৩ মাস উপার্জন ছাড়া কাজ করে যেতে হবে।

যখন এখান থেকে টাকা আসা শুরু হবে তবেই আপনি এর মজা বুঝতে পারবেন। নিজের ব্লগে কাজ করলে সেভেনফিগারের মাধ্যমে ঘরে বসে আয় করতে পারবেন। তবে নিজের লেখা অন্য সাইটে প্রকাশ করলে আপনি ওয়ান টাইম একটা ছোট পেমেন্ট পাবেন।

২. অনলাইনে সার্ভে করে আয় করতে পারেন:

সার্ভে করে আয় করা খুবই জনপ্রিয় অনলাইন কাজ। যদিও সার্ভে কাজে অনলাইন থেকে অফলাইনে বেশি মূল্য পাওয়া যায়। বাংলাদেশ থেকে অনলাইন সার্ভে করতে কিছুটা বাধা থাকে। তবে এমন অনেকগুলো ওয়েবসাইট রয়েছে যেগুলোতে বাংলাদেশ থেকে সার্ভে করে ইনকাম করতে পারবেন।

এখন আপনাকে এমন সাইটগুলো খুজে বের করতে হবে। যেগুলোতে বাংলাদেশ থেকে কাজ করে আয় করা যায়। সার্ভে করে আয় করা যায় এমন ওয়েবসাইট গুলোর একটা লিস্ট নিয়ে পরে বিস্তারিত লিখবো। তবে এখানে কয়েকটা সাইটের নাম দিচ্ছি।

যারা সার্ভে কাজের বিষয়ে অভিজ্ঞ না, তারা শুরুতে এটা নিয়ে কাজ করবেন না। কারণ সার্ভে কাজ খুবই সহজ তবে কিছু কৌশল আপনাকে জানতে হবে। বাংলাদেশের বাহির হতে এই কাজ করতে চাইলে কোনো সমস্যা নেই। আর যদি আপনি বাংলাদেশে বসে এই কাজ করে আয় করতে চান, তাহলে আপনাকে ভিপিএন ব্যবহার করতে হবে।

ভিপিএন ফ্রি-তে পাওয়া যায় আবার পেইড ভিপিএন পাওয়া যায়। সাধারণত সার্ভে কাজে অধিকাংশ ফ্রি ভিপিএন কাজ করে না। এর জন্য অবশ্যই আপনার পেইড ভিপিএন প্রয়োজন হতে পারে।

ঘরে বসে সার্ভে করে আয় করার কিছু জনপ্রিয় সাইট –

Advertisement
  1. Vindale Research
  2. Pinecone Research
  3. Swagbucks
  4. InboxDollars
  5. MyPoints
  6. SurveySavvy
  7. Survey Junkie
  8. OneOpinion
  9. Opinion Outpost
  10. Toluna

উক্ত সাইটগুলোতে আপনি সার্ভে করে আয় করার পাশাপাশি অনেকগুলো সহজ কাজ করেও ইনকাম করতে পারবেন। আমি নিজেও এই ওয়েবসাইটগুলোর মধ্যে অনেক সাইটে কাজ করেছিলাম। বর্তমানে আমি সার্ভে কাজে আগ্রহী না। তাই লেখালেখি ও কন্টেন্ট তৈরি নিয়ে কাজ করছি। পাশাপাশি বিদেশি অনেকগুলো বায়ারের সাথে ওয়েবসাইট তৈরি ও এসইও সার্ভিস নিয়ে কাজ করছি।

৩. ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট হিসেবে কাজ করে ইনকাম করতে পারবেন:

বর্তমানে ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্টদের অনেক চাহিদা রয়েছে। আপনি ঘরে বসে একজন ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট হিসেবে কাজ করে ইনকাম করতে পারেন। বিভিন্ন কোম্পানি দক্ষ ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্টদের খোজ করে থাকেন। আপনি অনলাইনে ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট জব লিখে সার্চ করলে অনেকগুলো কাজের সন্ধান পেয়ে যাবেন। ভার্চুয়াল অ্যাসিস্ট্যান্ট হিসেবে আপনি ঘন্টায় ৫ থেকে ১০ ডলার পর্যন্ত চার্জ করতে পারেন।

Advertisement

যারা একদম নতুন কাজ শুরু করেন তাদের জন্য ঘন্টায় ৫ থেকে ১০ ডলার খুবই ভালো এমাউন্ট। অভিজ্ঞতা বাড়লে আপনি প্রতি ঘন্টায় ৩০ থেকে ৫০ ডলার পর্যন্ত চার্জ করতে পারেন। তবে আমার পরামর্শ হচ্ছে যারা সম্পূর্ণ নতুন এই কাজ শুরু করতে যাবেন। আপনারা প্রথম দিকে অভিজ্ঞতা অর্জনের জন্য খুব কম দামে সার্ভিস প্রদান করবেন।

অনেকগুলো বায়ার আছে যারা কম টাকার বিনিময়ে কাজ করানোর জন্য নতুনদের হায়ার করেন। আপনি যদি নতুন হয়ে বেশি টাকা চার্জ করেন, তবে আপার কাজ পাওয়ার সম্ভাবনা কমে যাবে।

“অতিলোভে তাতী নষ্ট”।

বেশি লোভী হওয়ার একদম প্রয়োজন নেই। প্রথম দিকে কম টাকার বিনিময়ে কাজ করুন। তাহলে ধীরে ধীরে এগিয়ে যেতে পারবেন।

কিভাবে একজন ভার্চুয়াল এসিস্ট্যান্ট কাজ করে তা জানার জন্য অনলাইনে অনেকগুলো সহজ গাইড রয়েছে। নিজের বুদ্ধি কাজে লাগিয়ে খোঁজ করুন। অবশ্যই সবকিছুর সন্ধান পেয়ে যাবেন।

৪. সিপিএ মার্কেটিং করে ইনকাম করতে পারেন:

সিপিএ মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে ইনকাম করছে বাংলাদেশের হাজার হাজার ছাত্র ও গৃহিণীরা। আপনি যদি অনলাইনের মার্কেটিং বিষয় একটু দক্ষ হয়ে উঠতে পারেন। তাহলে সিপিএ মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে আয় করা খুবই সহজ হবে। আপনি চাইলে আজ থেকে সিপিএ মার্কেটিংয়ের কাজ করতে পারেন।

যারা সিপিএ কাজ করেন তাদের কে সবসময় অন্যদের থেকে কৌশলী হতে হয়। এই পদ্ধতিতে আপনি ঘরে বসে লক্ষ লক্ষ টাকা উপার্জন করতে পারেন। এই টাকা উপার্জন করতে হলে আপনাকে অনলাইন মার্কেটিং শিখতে হবে। কিভাবে অনলাইনে ট্রাফিকদের টাকায় পরিণত করতে হয় তা জানতে হবে।

আপনার হয়তো কথা শুনে অনেক জটিল মনে হতে পারে। তবে এগুলো শিখতে আপনার বেশি সময়ের প্রয়োজন নেই। প্রতিদিন ১ ঘন্টার মতো প্রাকটিস করলে আপনি দক্ষ হয়ে উঠতে পারবেন। ডিজিটাল মার্কেটিং শেখার জন্য আমাদের এই সাইটটাও আপনাকে সাহায্য করবে। আমরা আমাদের এই সাইটে অনেকগুলো ডিজিটাল মার্কেটিং সম্পর্কিত ব্লগ প্রকাশ করেছি।

কিভাবে ডিজিটাল মার্কেটিং শিখবেন তা জানার জন্য ভিডিও দেখুন –

Advertisement

৫. অ্যাড ক্লিক করে আয় করতে পারেন:

অ্যাড ক্লিক করে আয় করতে অনেক সময় নষ্ট হয়ে যায়। এবং অ্যাড ক্লিক করে খুব বেশি ইনকাম করা সম্ভব হয় না। তবে আপনার যদি সময় কাটানোর জন্য কোন কাজ করার প্রয়োজন হয়। তাহলে আপনি অ্যাড ক্লিক করে আয় করতে পারেন। অ্যাড ক্লিক করে ইনকাম করার হাজার হাজার ওয়েবসাইট রয়েছে। গুগলে একবার খোঁজ করলে অনেকগুলো ওয়েবসাইটের সন্ধান পেয়ে যাবেন।

আপনি যদি অনলাইন থেকে কিভাবে ঘরে বসে আয় করতে হয় এবিষয়ে কিছুই না জানেন, তাহলে এটা দিয়ে কাজ শুরু করতে পারেন। তবে মনে রাখবেন ভুল সাইটে কাজ করলে পেমেন্ট না পাওয়ার সম্ভাবনা থাকে। সুতরাং কাজ করার আগে অবশ্যই ওয়েবসাইটটি বিশ্বস্ত কিনা তা যাচাই করবেন।

যারা ঘরে বসে অ্যাড ক্লিক করে আয় চাই তাদের জন্য –

  • Neobux
  • Get-Paid
  • ySense
  • GPTplanet

এই ওয়েবসাইটগুলোতে কাজ করতে পারেন। আসলে এমন কাজ করে আয় করতে আপনাকে প্রচুর সময় দিতে হবে। কারণ এগুলো করে আয় হয় খুব কম পরিমাণ টাকা।

Advertisement
Advertisement

Md thouhidul islam tawhid - seo and digital marketing

একজন ইলেক্ট্রিক্যাল বিষয়ে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে সবসময় টেকনোলজি কে অগ্রাধিকার দিতে ভালোবাসি। প্রযুক্তির সাথে এগিয়ে যেতে ও নিজেকে সবসময় আপডেট রাখার জন্য নিয়মিত প্রযুক্তিগত জ্ঞান নিজে অর্জনের পাশাপাশি অন্যদের সাথে শেয়ার করাতে ভালো লাগে। সময় পেলে প্রযুক্তি, ব্যবসা, মার্কেটিং বিষয়ে লিখতে চেষ্টা করি। পেশা যাই হোক, তা হতে লাভবান হতে চাইলে ব্যবসা ও মার্কেটিং জ্ঞান আবশ্যক।

নিচের বাক্সে আপনার মতামত লিখে জানান।