bluehost affiliate marketing

Bluehost affiliate marketing দিয়ে ইনকাম করার ৩টি কৌশল

Advertisement

আজকে আমি Bluehost affiliate marketing নিয়ে আলোচনা করছি। Bluehost affiliate marketing নিয়ে বুঝতে পারলে ভাত আছে না বুঝলে নাই। প্রতিটি মার্কেটিং এর একেকটা কৌশল বা টেকনিক রয়েছে। মূলত বিভিন্ন কৌশল প্রয়োগ করে পণ্যের ব্রান্ডি ও বিক্রয় বৃদ্ধি করাকে মার্কেটিং বলা হয়।

আমার দেখা সবচেয়ে ভদ্র মানুষ মার্কেটার এর লোক। একজন ভালো মার্কেটার হতে হলে অবশ্যই ধর্য্যের প্রয়োজন আছে। এজন্য আমি প্রথমে বলেছি, বুঝলে ভাত আছে না বুঝলে নাই। একজন দক্ষ মার্কেটার হতে পারলে কোন প্রতিষ্ঠান আপনাকে অবহেলা করতে পারবেনা।

এখন কথা হচ্ছে ভাই,

Bluehost affiliate marketing এ দক্ষতার কি আছে? 

হ্যাঁ আমি এটাই বুঝাতে চাইছিলাম। দক্ষতার যদি প্রয়োজন না থাকতো, তাহলে সবাই এফিলিয়েট মার্কেটিং করে সফল হয়ে যেত। কিন্তু আমি আপনাদের বলছি, আমার দেওয়া কৌশলগুলো আপনি যদি সঠিকভাবে অনুসরণ করতে পারেন। অন্তত এটা বলতে পারি, আপনার আর বেশি অভিজ্ঞতার কোন প্রয়োজন নেই। শুধুমাত্র এই তিনটি কাজ আপনাকে খুবই মনোযোগ ও সময় দিয়ে করতে হবে।

আমি যে Bluehost affiliate marketing নিয়ে আপনাদের সাথে আলোচনা করছি। এটাই হচ্ছে আমার অভিজ্ঞতা। যার যত বেশি অভিজ্ঞতা আছে তিনি তত বেশি দক্ষ আমার আর আপনার মতে। আমিও নিজেকে অভিজ্ঞ ও দক্ষ বলতে পারি, তবে সফল নয়। নিজেকে সফল বলতে অনেক কিছু বিবেচনা করতে হয়। এজন্য আমি এটা কখনও বলবো না আমি দেওয়া কৌশল গুলো আপনাকে অবশ্যই অনুসরণ করতে হবে। এবং আপনি অবশ্যই সফল হয়ে যাবেন।

Bluehost affiliate marketing এ সফল হওয়ার ৩টি প্রধান কাজ –

১. একটিভ এবং আপডেট অফার

২. ট্রাফিক সোর্স টার্গেট ও জেনারেটর

৩. অটোমেশন সেলস।

একটিভ এবং আপডেট অফার :

Bluehost affiliate এর জন্য অবশ্যই আপনাকে Bluehost ওয়েবসাইটের প্রতিদিনের নিউজ ও আপডেট সম্পর্কে অবগত থাকতে হবে। ৩০% এর বেশি ক্লায়েন্ট পাবেন বিভিন্ন অফার প্রমোশন এর মাধ্যমে। ব্লুহোস্ট যখন কোনো অফার বা প্রমো কোড দিয়ে থাকবে, তখনই আপনাকে তা নিয়ে মার্কেটিং এর কাজ শুরু করতে হবে। ক্লায়েন্ট যখনি ব্লহোস্ট এর প্রমো কোডের খোজ করবে। তখনি যেন আপনার প্রচার করা প্রমো কোডের সন্ধান পেয়ে যায়। সেই ব্যবস্থা আপনাকে করতে হবে। 

Advertisement
bluehost affiliate marketing pro
bluehost affiliate marketing pro

প্রোমো কোড মার্কেটিং করার জন্য আপনাকে অনলাইন মার্কেটিং সম্পর্কে জানতে হবে। বিডিব্লগে আমরা কিভাবে অনলাইনে মার্কেটিং করতে হয় এই বিষয়ে অনেকগুলো কৌশল শেয়ার করে যায়। আপনি যদি আমাদের ব্লগের মার্কেটিং সম্পর্কিত আর্টিকেলগুলো পড়েন, তাহলে কিভাবে একটি প্রমো কোড এসইও করার মাধ্যমে প্রমোশন করতে হয়। তা আপনি বুঝে যাবেন।

এছাড়াও বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়াকে টার্গেট করে আপনি আপনার প্রোমো কোডটি টার্গেটেড অডিয়েন্সদের কাছে পৌঁছে দিয়ে আফিলিয়েট কমিশন ইনকাম করতে পারেন। এর জন্য আপনাকে ফেসবুক বা টুইটার এর মত জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া গুলোতে যুক্ত হতে হবে। এবং যারা এই সম্পর্কিত বিষয়ে আগ্রহী তাদেরকে আপনার ফলোয়ার হিসেবে যুক্ত করতে হবে।  ফেসবুকে বর্তমানে অনেকগুলো এরকম গ্রুপ তৈরি করা হয়েছে। আপনি চাইলে এই সকল গ্রুপে যুক্ত হতে পারেন। এবং সেখানে আপনার প্রমো কোডগুলোর আপডেট পোস্ট করতে পারেন।

ট্রাফিক সোর্স টার্গেট ও জেনারেটর –

যেকোনো এফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের পাওয়ার হচ্ছে ট্রাফিক। ট্রাফিক না পাইলে এফিলিয়েট মার্কেটিং এর কথা চিন্তা করা যায় না। তাই Bluehost affiliate marketing এ সফল হতে চাইলে আপনাকে বিভিন্ন মাধ্যম হতে ট্রাফিক জেনারেট করতে হবে।

দুই পদ্ধতিতে ট্রাফিক পাওয়া যায় –

১. Paid Traffic

২. Organic or Free Traffic

আপনি যদি এফিলিয়েট মার্কেটিং জগতে নতুন হয়ে থাকেন, তাহলে প্রাথমিকভাবে Organic or Free Traffic নিয়ে কাজ করার চেষ্টা করুণ। কেননা Paid Traffic পাওয়ার জন্য আপনাকে অতিরিক্ত টাকা খরচ করতে হবে। যা প্রাথমিকভাবে অনেকের জন্য কষ্টকর মনে হবে। এজন্য আপনি প্রথমে Organic or Free Traffic নিয়ে কাজ করার পর যদি আপনার এফিলিয়েট ইনকাম শুরু হয়, তাহলে আরও বেশি ইনকাম করতে আপনি Paid Traffic পদ্ধতিও ব্যবহার করতে পারেন।

ফ্রিতে মার্কেটিং করে ইনকাম করার জন্য আপনাকে প্রথমত সোশ্যাল মিডিয়া গুলোকে টার্গেট করতে হবে। এবং পাশাপাশি আপনার যদি একটা ওয়েবসাইট থাকে, তাহলে এসইও হচ্ছে পাওয়ার আপনার ইনকাম জেনারেট করার জন্য। যদি আপনি এসইও সম্পর্কে ভাল জানেন তাহলে, আপনাকে কোনো কষ্ট করতে হবেনা অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে অনলাইন থেকে অর্থ উপার্জন করতে।

অটোমেশন সেলস –

Advertisement

অটোমেশন সেলস বা স্বয়ংক্রিয় বিক্রি পদ্ধতি খুবই কার্যকর ভূমিকা রাখবে আপনার Bluehost affiliate marketing ইনকামের জন্য। এটি খুবই ইফেক্টিভ একটি পদ্ধতি যেখানে প্রতি ১০০ জন ক্লায়েন্টের মধ্যে ১ জনকে আপনি কাস্টমার হিসেবে পাবেন। এটি সাধারণত ব্যানার অ্যাডের মাধ্যমে প্রমোশনের কাজ করে। নিচে যে আপনি একটি ব্লুহোস্ট এর অ্যাড দেখতে পাচ্ছেন, তা হচ্ছে অটোমেশন সেলস সিস্টেম। গ্রাহক তখনই এই অ্যাড গুলো ভিজিট করে, যখন সত্যিই তার জন্য একটি ডোমেইন ও হোস্টিং এর প্রয়োজন পড়ে।

Advertisement

ঠিক আপনিও যদি এরকম অটোমেশনের মাধ্যমে ক্রয় জেনারেট করতে চান। এবং আফিলিয়েট কমিশন পেতে চান, তাহলে আপনিও এই পদ্ধতি অনুসরণ করতে পারেন। অটোমেশন এর মাধ্যমে ক্রয় সংগ্রহ করতে হলে, আপনার ওয়েবসাইটে আপনাকে টার্গেট ট্রাফিক নিয়ে আসতে হবে। মনে করুন আপনি ব্লুহোস্ট অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করতে আগ্রহী। 

এক্ষেত্রে আপনার একটা ওয়েবসাইট তৈরী করা প্রয়োজন। আপনি আপনার প্রয়োজন মিটানোর জন্য। যদি আপনি আমার দেওয়া এই ব্যানারে ক্লিক করে ব্লুহোস্ট থেকে ডোমেইন-হোস্টিং ক্রয় করেন। এবং আপনার ওয়েবসাইটটি তৈরি করেন, তাহলে আমি এখান থেকে অটোমেশন সেলস এর মাধ্যমে একটি কমিশন সংগ্রহ করতে সক্ষম হব।

Bluehost affiliate এর জন্য কিভাবে আবেদন করতে হয়

তা জানতে নিচের ভিডিওটি দেখুন:

প্রিয় পাঠক,  আশা করি আপনাদেরকে ব্লুহোস্ট অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং সম্পর্কে তিনটি কৌশল শেয়ার করতে সক্ষম হয়েছি। এই তিনটি কৌশল যদি আপনারা সঠিকভাবে ব্যবহার করতে পারেন, তাহলে অবশ্যই ব্লুটুথের মাধ্যমে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে কমিশন সংগ্রহ করতে পারবেন। অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে অর্থ উপার্জন করা খুবই জনপ্রিয় একটি প্যাসিভ ইনকাম।

Advertisement

Md thouhidul islam tawhid - seo and digital marketing

একজন ইলেক্ট্রিক্যাল বিষয়ে ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে সবসময় টেকনোলজি কে অগ্রাধিকার দিতে ভালোবাসি। প্রযুক্তির সাথে এগিয়ে যেতে ও নিজেকে সবসময় আপডেট রাখার জন্য নিয়মিত প্রযুক্তিগত জ্ঞান নিজে অর্জনের পাশাপাশি অন্যদের সাথে শেয়ার করাতে ভালো লাগে। সময় পেলে প্রযুক্তি, ব্যবসা, মার্কেটিং বিষয়ে লিখতে চেষ্টা করি। পেশা যাই হোক, তা হতে লাভবান হতে চাইলে ব্যবসা ও মার্কেটিং জ্ঞান আবশ্যক।

নিচের বাক্সে আপনার মতামত লিখে জানান।