এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল লেখার ৫ টি স্মার্ট টিপস

আজকে আমরা, BdbloQ এর পাঠকদের জন্য এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল লেখার ৫টি স্মার্ট টিপস শেয়ার করতে যাচ্ছি।

যেগুলোর অনুসরণ আপনাকে এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল লিখতে সাহায্য করবে। তাহলে চলুন শুরু করা যাক।

১। কীওয়ার্ড রিসার্চ দিয়ে শুরু করুন:

বেশ কিছুদিন ধরে গুগলের সার্চ ইঞ্জিনগুলো রেংকিং এর ক্ষেত্রে keyword কে খুব প্রাধান্য দিচ্ছে। তাই এসইও ফ্রেন্ডলি কন্টেন্ট লিখার জন্য এই কীওয়ার্ড রিসার্চ অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ।

কিন্তু এই গুরুত্বপূর্ণ কাজটি করার জন্য আপনাকে অনেক বেশি আপডেট থাকতে হবে। কীওয়ার্ড বুঝতে হবে। কিভাবে কীওয়ার্ড রিসার্চ করতে হয়, তা অবশ্যই জানা থাকতে হবে।

উদাহরণ স্বরূপ, আপনি মালেশিয়া ভ্রমণে যেতে চাচ্ছেন। আপনি মালেশিয়ার পর্যটন এলাকা সম্পর্কে জানতে মোবাইল সার্চ করতেছেন।

এখান আপনি অবশ্যই ” Top tourist Sports in Malaysia” or Malaysia tourist sports “এরকম কিছু সার্চ করবেন।

এখানে tourist spots হচ্ছে আপনার কীওয়ার্ড। মানে যে শব্দটা টার্গেট করে সার্চ করবেন, ওটা আপনার কীওয়ার্ড।

এখন আপনি আর্টিকেল লিখার সময় বিশেষ ভাবে মনোযোগ দিতে হবে, আপনার আর্টিকেলের মূল কীওয়ার্ড কোনগুলো। এগুলোকে প্রাধান্য দিয়ে আর্টিকেল লিখতে হবে।

২। সঠিক স্থানে কীওয়ার্ড বসান:

আপনার আর্টিকেলের সঠিক জায়গায় কীওয়ার্ড বসান। কীওয়ার্ড সেট করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি কাজ।

একটু বিস্তারিত বলি, কীভাবে কীওয়ার্ড সেট করবেন? ধরুন, আপনার কীওয়ার্ড ” Top tourist sports “. আপনি এই কীওয়ার্ড টা আপনার ইচ্ছে মতো বসালে চলবে না।

আপনাকে লিখতে হবে একটি পরিপূর্ণ বাক্য। সেই বাক্যে সেট করতে হবে আপনার টার্গেট কীওয়ার্ড। যেমন আপনি লিখতে পারেন, Top tourist sports in Malaysia.

মনে রাখবেন, কীওয়ার্ড সেট করার সময় একটি সুন্দর বাক্যসহ সেট করতে হবে।

কীওয়ার্ড একটি লিখায় ২-৩ বার বা লিখা যদি অধিক বড় হয় সেক্ষেত্রে আপনি সর্বোচ্চ ৪ বার ব্যবহার করতে পারেন। এটাই সবচেয়ে ভালো পদ্ধতি।

এই লিখাতে আমার টার্গেটে কীওয়ার্ড হলো, এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল। দেখুন আমি আমার টার্গেটেড কীওয়ার্ড কয়বার এবং কীভাবে ব্যবহার করেছি।

আপনি আমার লিখাটি মনোযোগ দিয়ে অনুসরণ করলে, এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল লিখার স্মার্ট টিপসগুলোর ব্যবহার জানতে পারবেন।

৩। দীর্ঘ কীওয়ার্ড বাছাই করুন:

দীর্ঘ কীওয়ার্ডের কথা বলায়, হয় তো এর চাহিদা নিয়ে মাথায় ঘুরপাক খাচ্ছে।

নতুন ওয়েবসাইট বা নতুন লিখা এসইও করার জন্য দীর্ঘ কীওয়ার্ড অনেক কার্যকরী ভূমিকা রাখেন।

মনে রাখবেন দীর্ঘ কীওয়ার্ডের চাহিদা যেমন কম, এর প্রতিযোগিতাও কিন্তু কম।

যেমন : Malaysia tourist sports লিখে সার্চ করলেন ১০০ জন। আর এর প্রতিযোগী আছে ১০০০০০ (এক লাখ)।

আবার Top tourist sports in Malaysia. এই কীওয়ার্ড লিখে সার্চ করলো ২০ জন। আর এই কীওয়ার্ডের প্রতিযোগী আছে ২০০ জন।

এবার আপনি বাছাই করুন, কোন কীওয়ার্ড আপনি নিবেন? এটা সম্পূর্ণ আপনার পছন্দের উপর। তবে আমি নতুনদের জন্য অবশ্য দীর্ঘ কীওয়ার্ড সাজেস্ট করবো।

৪। রেজাল্ট পেইজের নিচের রেজাল্ট অনুসরণ করুন:

গুগল রেজাল্ট পেইজের নিচে সার্চ করা রেজাল্টের সাথে রিলেটেড আরো ৮ টি প্রশ্ন দেখায়। যেগুলো সাধারণ ভিজিটাররা বেশি করে থাকেন।

আপনাকে এই লিস্টটি খুব সাহায্য করবে আর্টিকেল লিখার ক্ষেত্রে। আপনি এই ৮ টি সাজেস্ট প্রশ্ন অনুসরণ করে লিখতে পারেন।

এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল লেখার ৫টি স্মার্ট টিপস এর এটি অন্যতম। এটা আপনাকে এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল লিখতে সাহায্য করবে। এমনকি গুগল এসইও করতেও।

৫। ফোরাম সাইট রিসার্চ :

আপনার টার্গেট অডিয়ান্সদের প্রশ্ন বা চাহিদা বুঝতে, আপনি ফোরাম সাইটগুলোতে ভিজিট করুন।

দেখুন তারা সেখানে কোন ধরনের প্রশ্ন করছেন। এই প্রশ্নগুলো রিসার্চ করে আপনি আপনার আর্টিকেল সাজাতে পারেন।

আজ শেয়ার করলাম এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল লেখার ৫ টি স্মার্ট টিপস। আশা করছি, আর্টিকেল লেখার জন্য, এগুলো আপনাকে অনেকখানি সাহায্য করবে।